ভারতে কখনো কোনো বিপদ পড়তে দেয় না এই তিনটি দেশ ,জানুন নাম !

নমস্কার বন্ধুরা আজ আপনাদের সাথে একটা বিশেষ ব্যাপার নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি। আপনারা এই বিশেষ খবরটি পেয়ে নিশ্চয় অবাক হয়ে যাবেন। আসুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক কি সেই বিশেষ খবর।আপনারা এটা নিশ্চয়ই জানেন যে ভারত এবং পাকিস্তানের দীর্ঘদিনের শত্রুতার সম্পর্ক। এই দুটি দেশের মধ্যে সম্পর্ক কোন দিনই ভাল হয়ে ওঠেনি অর্থাৎ পাকিস্তান এবং ভারত হচ্ছে চির শত্রু। পাকিস্তানি সেনারা প্রায়ই বিনা কারণে ভারতীয় সেনাদের উপর অর্থাৎ সীমারেখার ওই পার থেকে প্রবল গুলি বর্ষণ করে। এবং প্রায় দিনই দেখা যায় যে পাকিস্তান চেষ্টা করছে ভারতের সীমা অতিক্রম করে তাদের জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোকে ঢুকিয়ে দিতে। যাতে ভারতের ক্ষতি করা যায়। কিন্তু তারা কখনও তাদের সেই কাজে সফল হয় না। কারণ যখনই তারা এরকম করতে যায় তখনই তাদেরকে উপযুক্ত এবং যোগ্য জবাব দেয় ভারতীয় সেনা জাওয়ানরা।

পাকিস্তানের পাশাপাশি আর এক প্রতিবেশী দেশ চীনের সাথে ভারতের সম্পর্ক বেশ ভালো নয়। অর্থাৎ চিনও চায় যে কোন উপায়ে ভারতের ক্ষতি করতে। কিন্তু সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার এটাই যে যেদিন থেকে ভারতে বিজেপি সরকার এসেছে অর্থাৎ মোদীজি শাসনকালে চীন এবং পাকিস্তান বেশ চাপে রয়েছে। অর্থাৎ চীন এবং পাকিস্তান এখন ভারতের দিকে কিছু করার আগে অন্তত দুবার ভাবে কারণ মোদি সরকার তাদের কে চাপে রেখেছে। এর কারণ হল মোদি সরকার আসার পরে মোদির বিদেশ নীতির মাধ্যমে বিশ্বের সকল বড় বড় এবং শক্তিশালী দেশ গুলির সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক খুবই মজবুত হয়ে গিয়েছে। এর ফলে বিশ্বের প্রায় সমস্ত দেশই এখন ভারতবর্ষকে সমর্থন করছে। কিন্তু আজ সেই সব দেশের মধ্যে এমন কিছু দেশের নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করতে চলেছি যারা যেকোনো পরিস্থিতিতে ভারতবর্ষ কে যেকোনো প্রকারের সাহায্য করতে রাজি।

ইসরাইল:-
এই ইসরাইল হল ভারতের সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য বন্ধু। এই ইসরাইল হল এমন একটা দেশ যে দেশ এখনও পর্যন্ত ভারতের বিপদে কোনদিন না বলেনি। ভারতের যখনই দরকার পরে তখনই সবার আগে ছুটে আসে এই ইসরাইল। এবং ভারত ও ইসরাইলের সম্পর্ককে আরও বেশি বিশ্বাসযোগ্যতায় নিয়ে যাওয়া এবং মজবুত করার জন্য মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পরে তিন বার ইসরাইল সফর করে ফেলেছেন। আপনাদের আরও একটা বিশেষ তথ্য দিয়ে রাখি, এই ইসরায়েল তখনও ভারতকে সাহায্য করেছিল যখন ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ হয়েছিল। সেই সময় ইসরাইল, পাকিস্তানকে নয় বরং ভারত কে সাহায্য করে ভারতের দিকে বন্ধুত্বপূর্ণ হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল।

জাপান:-
এই জাপান কে বলা হয় সূর্য উদয়ের দেশ। জাপানের ভৌগোলিক বৈচিত্র্য খুবই সুন্দর। আর এর সাথে সাথে ভারতের বন্ধুদের মধ্যে দুই নাম্বারে যে দেশের নাম আসে সেই দেশ হল জাপান। এই জাপানের সাথে দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক রয়েছে ভারতের। এবং সেই সম্পর্ককে আরও বেশি মজবুত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদিজী বেশ কয়েকবার জাপান সফরে গিয়েছেন। জাপান বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে ভারত কে সাহায্য করেছে। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো জাপানের জন্যই ভারতে আসতে চলেছে বুলেট ট্রেন।

রাশিয়া:-
ভারতে দীর্ঘদিনের বন্ধু হলো এই রাশিয়া। ভারত এবং রাশিয়ার মধ্যে সম্পর্ক এতটাই ভাল যে, ভারত এবং রাশিয়া একে অপরের সাথে অনেকগুলি চুক্তিতে লিপিবদ্ধ হয়ে আছে। যেমন একটি দেশের সেনা আরেক দেশে গিয়ে ট্রেনিং করে আসে। কখনো ভারতীয় সেনা রাশিয়ায় যান তো কখনো রাশিয়ার সেনা ভারতে এসে বিভিন্নভাবে ট্রেনিং করেন। বিভিন্ন মহড়ায় অংশ গ্রহন করে। এছাড়াও ভারত এবং রাশিয়ার কাছে রয়েছে অনেক গুলি উন্নত মানের অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান যেগুলি দরকার পড়লে এক দেশ আরেক দেশকে দিয়ে সাহায্য করে থাকেন। অর্থাৎ এক কথায় বলা যায় যে সামরিক দিক থেকে ভারতের সবচেয়ে প্রিয় এবং ভরসা যোগ্য বন্ধু হল রাশিয়া। সেই সাথে যেকোনো কঠিন পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে সবার আগে দাঁড়ায় রাশিয়া। মোদীজি বেশ কয়েকবার রাশিয়া সফর করেছেন।

#অগ্নিপুত্র

The India Desk

Indian famous bengali portal, covers the breaking news, trending news, and many more. Email: theindianews.org@gmail.com

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close