খুব দরিদ্র পরিবার থেকে উঠে এসে এই ভারতীয় ক্রিকেটাররা করেছেন দেশের নাম উজ্জ্বল, একজনের তো বাবা করতেন কয়লা কারখানায় কাজ

সারা বিশ্বের মানুষ ক্রিকেট দেখতে পছন্দ করেন। ক্রিকেট একটি এমন জাতীয় খেলা, যা উপভোগ করেন নারী-পুরুষ নির্বিশেষে। গ্রাম থেকে শহরে সর্বত্র এই খেলার প্রচলন রয়েছে। তবে আজ আমরা কথা বলবো কিছু খেলোয়ারের সম্পর্কে, যারা জীবনের সংগ্রাম করে আজ খ্যাতির শিরোনামে পৌঁছেছেন। এই ক্রিকেটাররা প্রথম থেকে বিলাসবহুল জীবন যাত্রায় অভ্যস্ত ছিলেন না, এমনও দিন গেছে যখন একটি বল কেনার মত অর্থ ছিল না তাঁদের কাছে, কিন্তু আজ এই ব্যাট এবং বলের ওপর ভরসা করে তাঁরা হয়েছেন কোটি টাকার মালিক।

রবীন্দ্র জাদেজা: অনবদ্য এই ক্রিকেটারকে আমরা সকলেই চিনি। কিন্তু এটা হয়তো অনেকেই জানেন না যে, একসময় এই ক্রিকেটারের ব্যাট কেনার মত অর্থ ছিল না। ক্রিকেটারের বাবা ছিলেন একজন নাইট গার্ড এবং মা ছিলেন একজন নার্স। ভীষন অর্থকষ্টে দিন গুজরান হয়েছিল তাঁদের। কঠোর পরিশ্রম এবং দৃঢ় সংকল্পের কারণে আজ দেশের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার হয়ে উঠেছেন রবীন্দ্র জাদেজা।

 

মহেন্দ্র সিং ধোনি: সিনেমা জগতের কল্যাণে আমরা সকলেই দেখেছি মাহির জীবনের নানা লড়াইয়ের কথা। প্রচুর পরিশ্রম করে আজ এই জায়গায় নিজেকে নিয়ে এসেছেন তিনি। ধোনির বাবা ছিলেন একজন পিচ কিউরেটর। সামান্য নিম্ন মধ্যবিত্তের বাড়িতে ক্রিকেট খেলা ছিল বিলাসিতা। কিন্তু হার না মানা এই ক্রিকেটার আজ সকলকে দেখিয়ে দিয়েছেন সবকিছু সম্ভব আমাদের জীবনে।

 

ভুবনেশ্বর কুমার: ক্রিকেট জগতের অন্য একটি নাম ভুবনেশ্বর কুমার। একসময় ক্রিকেট খেলার জন্য উপযুক্ত জুতো ছিল না তার কাছে। পরিবারের সকলের সমর্থনে তিনি আজ বিশ্বের সেরা প্লেয়ারদের মধ্যে অন্যতম।

উমেশ যাদব: ভারতবর্ষের ফাস্ট বোলারদের মধ্যে অন্যতম হলেন উমেশ যাদব। শৈশবে প্রচুর কষ্ট দেখেছিলেন তিনি। তাঁর বাবা কাজ করতেন কয়লা কারখানায়। দু’মুঠো অন্ন জোগাড় করতে কষ্ট করতে হত তাদের। সেই উমেশ আজ নিজের স্বপ্ন পূরণ করেছেন কঠোর পরিশ্রমের দ্বারা।

 

হরভজন সিং: এই খেলোয়াড়কে আমরা সকলেই চিনি। একসময় পারিবারিক আর্থিক অবস্থার কারণে হরভজন সিং ট্রাক ড্রাইভার হবার কথা ভেবেছিলেন। অবশেষে কঠোর পরিশ্রম এবং ভাগ্যের কারণে তিনি ইন্ডিয়ান ক্রিকেট টিমের অন্যতম সদস্য হয়েছেন।