5G চুক্তিতে বাজিমাত করল Nokia, Samsung ও Ericsson খালি হাতে বাড়ি ফিরল চীনা সংস্থা

এবার ভারতে আসতে চলেছে ৫-জি, তাঁরই চুক্তি আজ চূড়ান্ত হল যেখানে চিনা সংস্থা গুলিকে খালি হাতে ফিরতে হল।অপরদিকে বাজিমাত করে নিল নোকিয়া স্যামসং এবং এরিকসনের মতো সংস্থাগুলি। যদিও এগুলির বিষয়ে এখনও অফিসিয়াল ভাবে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। সমস্তটাই যা পাওয়া গিয়েছে তা ইকনোমিক টাইমস এর একটি প্রতিবেদনে।

সেখানে জানা যায় জিও এবং এয়ারটেল নিজেদের ৫জি সরঞ্জামের ক্ষেত্রে অংশীদারিত্ব চূড়ান্ত করে ফেলেছে। ইতিমধ্যেই সেখান থেকে চীনা সংস্থা বাদ পড়েছে যেমন জেড টি ই, এইচ উ এ ডব্লু ই আই। বেশিরভাগই যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে তা স্যামসাং এরিকসন এবং নোকিয়ার সঙ্গেই, আমরা জানি এরিকসন হল সুইডেনের এবং স্যামসাং কোরিয়ার সংস্থা, এমনকি নোকিয়া ফিনল্যান্ডের অর্থাৎ নেক্সট জেনারেশন নেটওয়ার্ক থেকে বাদ পরল চীনা সংস্থাগুলি।

অপরদিকে ইউরোপীয় ভেন্ডারদের সঙ্গে এখনো আলোচনায় মগ্ন ভোডাফোন আইডিয়া ৫জি তাদের সরঞ্জাম অংশ দারিত্বের বিষয় নিয়ে। তবে প্রথমবারের জন্য মুকেশ আম্বানির জিও-তে মোবাইল সরঞ্জাম সরবরাহ করবেন ইউরোপীয় বিক্রেতারা। আপাতত প্রথমে ১৫ থেকে ২০ হাজার ৫জি সাইটে কাজ শুরু হবে, যাতে শহর গুলিকে আওতায় আনা যায়। তবে জিও তার অর্ডারগুলিকে আরো বড় করে তুলতে চাইছে, যাতে বড় বড় শহর গুলি যতটা সম্ভব বেশি করে এলাকা কভার করা যায়।

শোনা যাচ্ছে জিও এবং এয়ারটেল কেউই তাদের নেটওয়ার্ক সরঞ্জামের অর্ডার এখনো পর্যন্ত দেয়নি অর্থাৎ আগামী দিনে এয়ারটেলের সঙ্গে তিনটি অন্য সংস্থা ৫ জি নিয়ে কাজ করতে চলেছে। তবে এই প্রতিযোগিতার মার্কেটে জিও এয়ারটেলের থেকেও কম খরচে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে এরিকসন। বোঝাই যাচ্ছে এই ফাইভ-জিকে নিয়ে সমস্ত টেলিকম সংস্থাগুলি রাতের ঘুম উড়েছে, সেরার সেরা হওয়ার দৌড়ে সবাই নাম লেখাতে ব্যস্ত।