বাড়িতে কোন কোন পশু রাখলে আপনি পাবেন ধন লক্ষ্মীর আশীর্বাদ, চলুন জেনে নেওয়া যাক

বাড়িতে পশু-পাখিকে সেবা করা অনেকেই পছন্দ করেন। অনেকেই নিজের একাকীত্ব পূরণ করার জন্য বাড়িতে রাখেন পশুপাখি। আবার অনেকে আছেন যারা বাড়িতে পশুপাখি রাখা পছন্দ করেন না। কিন্তু আজকে আপনাকে এমন কিছু প্রাণীর কথা বলব, যাদের বাড়িতে রাখা অত্যন্ত শুভ। এই সমস্ত পশুপাখি যদি বাড়িতে থাকে, তাহলে বাড়িতে শুভ ফল পাওয়া যায়। বাস্তুশাস্ত্র অনুযায়ী এই পশুপাখি বাড়িতে থাকলে আপনার জীবনে সবসময় সুখ-স্বাচ্ছন্দ বজায় থাকবে।

মাছ: বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়িতে মাছ রাখা অত্যন্ত শুভ। প্রত্যেকদিন যদি মাছের সঙ্গে শস্য যোগ করা যায় তাহলে ঘরে মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ বজায় থাকে। দেখবেন বাড়িতে মাছের ট্যাংকের যেন মাছের সংখ্যা ৩ বা ৭ না হয়। মাছের ক্ষেত্রে এই সংখ্যা দুটি ভীষণ ভাবে অশুভ।

গাভী: প্রাচীনকাল থেকে হিন্দুদের বাড়িতে গৃহপালিত পশু হিসেবে রাখা হয় গাভীকে। হিন্দু ধর্ম অনুসারী গরুকে ঈশ্বরের রুপ হিসেবে বর্ণনা করা হয়। বাড়িতে গরু থাকলে ইতিবাচক শক্তির বিকাশ ঘটে এবং নেতিবাচক শক্তি দূর হয়ে যায়।বাড়িতে গরু থাকলে বাড়িতে সৌভাগ্য এবং সুখ আসে

কচ্ছপ: বাস্তুশাস্ত্র মতে কচ্ছপের গুরুত্ব অপরিসীম। কচ্ছপ কে ভগবান বিষ্ণুর অবতার বলে মনে করা হয়। বাড়িতে জীবন্ত কচ্ছপ না থাকলেও শোপিস করে রাখতে পারেন। কচ্ছপ ঘরে থাকলে বাড়িতে ধন লক্ষ্মীর আশীর্বাদ থাকে। তাই আপনি যদি অর্থসংক্রান্ত সমস্যায় পড়ে থাকেন, তাহলে অবশ্যই ঘরে রাখুন একটি কচ্ছপ।

সাদা ইঁদুর: গণেশের বাহন বলে মনে করা হয় সাদা ইঁদুর কে। এটি ঘরে লাগলে আপনার দুর্ভাগ্য সরে গিয়ে সৌভাগ্য ফিরে আসবে। যারা দুর্ভাগ্য নিয়ে অস্থির, তারা বাড়িতে রাখতে পারেন সাদা ইঁদুর।

কুকুর: কুকুর এমন একটি গৃহপালিত পশু, যাকে সবথেকে বিশ্বস্ত বলে মনে করা হয়। সহজেই মানুষের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে কুকুর। তাছাড়া কুকুর থাকলে বাড়িতে অশুভ শক্তি ঘোরাফেরা করে না। তাই বাড়িতে শুভশক্তির আনাগোনা আনতে চাইলে বাড়িতে নিয়ে আসুন কুকুর।