দেশনতুন খবরবিশেষরাজ্য

ট্রেনের টিকিট বাতিল করার ক্ষেত্রে নিয়ে আসা হল একাধিক পরিবর্তন, এবার থেকে ট্রেনের টিকিট..

করোনার জন্য যে দিন থেকে লকডাউন ঘোষনা করেছে সরকার সেই দিন থেকেই বন্ধ রয়েছে ট্রেন চলাচল। এরপর পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর জন্য কিছু শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনের ব্যবস্থা করে সরকার। বর্তমানে ভারতীয় রেলের তরফ থেকে 1 জুন থেকে কিছু যাত্রীবাহী ট্রেন চালু করা হয়েছে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ছাড়াও 200 টি বিশেষ ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল মন্ত্রক। লকডাউনের প্রথম দিন থেকেই যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল সম্পূর্ন রুপে বন্ধ ছিল। এখন এই ট্রেন গুলি জন্য টিকিট অনলাইনের মাধ্যমে বুক করতে হবে যাত্রীদের।

এছাড়াও ডাকঘর, যাত্রী টিকিট সুবিধা কেন্দ্র সহ কম্পিউটারাইজড পিআরএস কাউন্টার গুলি থেকেও যাত্রীরা টিকিট কাটতে পারবেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ‘এজেন্টস’ -এর দ্বারা টিকিট বুক করার জন্য রেলের তরফ থেকে অনুমতি দেওয়া হয় নি। তবে 30 দিন আগের থেকে যাত্রীরা টিকিট সংরক্ষণ করতে পারবেন। এবার যদি কেও কোনো কারন বসত টিকিট বাতিল করেন তবে সেই ক্ষেত্রে কিছু নিয়মের পরিবর্তন করা হয়েছে। আসুন এবার জেনে নিই নতুন কি নিয়ম আনা হয়েছে —

1. আইআরসিটিসির ই-টিকিটিং ওয়েবসাইটে গিয়ে ব্যবহারকারীর নাম পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন।

2. এরপর আপনাকে ‘আমার লেনদেন’ option এ গিয়ে ‘বুকড টিকিট ইতিহাস’ লিঙ্কে ক্লিক করুন। এরপর সেখান আপনার বুক করা টিকিট টি দেখাবে। এরপর যদি আপনি টিকিট বাতিল করতে চাইলে সেখানে ‘বাতিল টিকিট’ অপশনে ক্লিক করুন।

3. টিকিট বাতিল হওয়ার জন্য যাত্রীদের বেছে বাতিলকরনের শুরু করতে হবে। এরপর আপনি আংশিক টিকিট বাতিল করতে চাইলে সেই সমস্ত ব্যাবহারকারীদের নির্বাচন করতে হবে।

4. যদি কেও আংশিক টিকিট বাতিল করেন সেই ক্ষেত্রে যাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য ইআরএসের একটি নতুন প্রিন্টআউট সঙ্গে রাখতে হবে।

5. যদি টিকিট বাতিল করতে হয় তাহলে ভ্রমনকারীর নামের আগে একটি বক্স থাকবে সেটি নির্বাচন করুন এবং এর পর ‘টিকিট বাতিল করুন’ বলে একটি অপশেন থাকবে সেখানে ক্লিক করুন। এরপর বাতিল নিশ্চিত করার জন্য আবার ‘ঠিক আছে’ বোতামটিতে ক্লিক করুন।

6. বাতিল হয়ে যাওয়ার পর যে টাকা আপনি পাবেন সেই টাকা আপনার স্ক্রীনে দেখাবে। এবং বাতিলের কনফার্মেশেন ম্যাসেজ আপনার বুকিং এর সময় দেওয়া মোবাইল নং এ পাঠানো হবে।

7. আইআরসিটিসির বাতিলিকরনের চার্জ গুলি নিচে দেওয়া হল – ট্রেনের যাত্রা শুরু হওয়ার 48 ঘন্টা আগে যদি একটি নিশ্চিত টিকিট বাতিল করা হয় তাহলে এসি ফাস্ট ক্লাসের ক্লাস বা এক্সিকিউটিভ ক্লাসের জন্য 240 টাকা চার্জ দিতে হবে। এসি 2 টায়ার বা ফাস্ট ক্লাসের জন্য 200 টাকা। এছাড়াও এসির জন্য 180 টাকা কেটে নেওয়া হবে। এরপর 3 টায়ার বা এসি চেয়ার কার বা এসি ইকোনোমি এবং স্লিপার ক্লাসের জন্য 120 টাকা চার্জ কাটবে রেল। আর সেকেন্ড ক্লাসের জন্য 60 টাকা চার্জ কাটা হবে।

Related Articles

Back to top button