Skip to content

বিশ্বের চতুর্থ ধনী অভিনেতা শাহরুখ খানের রয়েছে এই বিশেষ জিনিস যা নেই ভারতের ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির কাছেও

অর্থ থেকে প্রতিপত্তি, সবেতেই অন্যান্য অভিনেতার থেকে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন বলিউড কিং খান অর্থাৎ শাহরুখ খান। একসময় শাহরুখ খানের সিনেমা মানেই ছিল চোখ বন্ধ করে হিট সিনেমা। ৯০ শতকে কি দারুন দারুন সিনেমা আমাদের উপহার দিয়েছেন তিনি, মনে পড়লেই মন ভালো হয়ে যায়। বর্তমানে বিশ্বের চতুর্থ ধনী অভিনেতা হিসেবে নাম উঠে এসেছে শাহরুখ খানের। পিছনে ফেলে দিয়েছেন নামিদামি হলিউড তারকাদের।

শাহরুখ খানের কাছে যে বিশ্বের বেশ কিছু মূল্যবান জিনিসের কালেকশন থাকবে, তা বলাই বাহুল্য। তবে খুব কম মানুষই জানেন শাহরুখ খানের কিনা সব থেকে দামি জিনিস কোনটি। ২০১৯ সালের রেডিও মিরচিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি প্রকাশ করেছিলেন, মুম্বাইতে যে মান্নাত বাড়িতে তিনি থাকেন, সেটাই এখনো পর্যন্ত তার সব থেকে দামি জিনিস।

সাক্ষাৎকার দেবার সময় তিনি বলেছিলেন, “আমি ছোটবেলা থেকে দিল্লিতে বড় হয়েছিলাম এবং দিল্লিতে আমার একটি ছোট্ট বাংলো রয়েছে। পরবর্তী সময়ে যখন কাজের সূত্রে আমি মুম্বাইতে আসি তখন আমি বিবাহিত। স্ত্রী এবং আমি একটি ছোট্ট অ্যাপার্টমেন্ট নিয়ে থাকতাম। তখন অনেকেই বলতেন আমি খুব ছোট একটি বাড়িতে থাকি”।

তিনি আরো বলেন, ” এরপর যখন আমি মান্নাতকে দেখলাম, তখন আমার মনে হয়েছিল এই বাড়িতেই আমার ভবিষ্যৎ রয়েছে। এরপর যখন এটি আমি নিজের অর্থ দ্বারা কিনে নিয়েছিলাম তখন মনে হয়েছিল আমি জীবনের সবকিছু অর্জন করেছি। এখনো পর্যন্ত আমার কিনা সবথেকে দামি জিনিসের মধ্যে এটি অন্যতম। শুধু অর্থের দিক দিয়ে নয় এই বাড়ি আমার কাছে ভীষণ প্রিয়। এই বাড়িতেই আমি আমার তিন সন্তানকে পেয়েছি এবং আমার জীবনের সমস্ত সুখ দুঃখের সাথী হয়ে রয়েছে এই বাড়ি”।

প্রসঙ্গত, মুম্বাইতে যে সমস্ত পর্যটক ঘুরতে আসেন তাদের কাছেই অমিতাভ বচ্চনের “জলসা” এবং শাহরুখ খানের “মান্নাত”- এ দুটি অন্যতম দর্শনীয় স্থান। শাহরুখ খান প্রতি সপ্তাহে একটি নির্দিষ্ট দিনে এবং নিজের জন্মদিন থেকে শুরু করে দীপাবলি এমনকি ঈদের মতো বড় বড় অনুষ্ঠানেও সময় বার করে ভক্তদের উদ্দেশ্যে নিজের ব্যালকনিতে এসে দাঁড়ান। এখন কিং খানের সঙ্গী হয়েছেন তাঁর ছোট্ট ছেলে আব্রাহাম।