ভুলে যান মিনিটের পর মিনিট অপেক্ষার কথা, এবার 6G টেকনোলজিতে সেকেণ্ডেই ডাউনলোড হবে 142 ঘন্টার ভিডিও

এখনো 5g পরিষেবা চালু হয়নি কিন্তু সারা বিশ্বজুড়ে শুরু হয়ে গেছে 6g পরিষেবা নিয়ে আলোচনা। ইতিমধ্যেই যেহেতু দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে 5g পরিষেবা চালু হতে চলেছে তাই এটির ব্যবহার আপাতত মানুষ করতে পারবে এটাই মনে করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষের লক্ষ্য এখন পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তুলে দেওয়া সিক্স জি ইন্টারনেট। যদিও 6 g নিয়ে নানান ধরনের জল্পনা-কল্পনা তৈরি হলেও এটি বাস্তবে রূপ নিতে বেশ কয়েক বছর লেগে যাবে। ভারতে এখনো সর্বত্র 5g পরিষেবা চালু না হলেও চীনে ইতিমধ্যেই নিয়ে কাজ শুরু হয়ে গেছে 6g নিয়ে।

তবে ভারত ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন কারণ ভারত সরকার এই বছরের মার্চে বলেছিলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে ভারতে সিক্স জি নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে। স্বাভাবিকভাবেই এখন এই নেটওয়ার্ক নিয়ে মানুষের মনে উঠে এসেছে নানান প্রশ্ন চলুন কি কি সেই প্রশ্ন এবং কিভাবে সেই প্রশ্নের উপশম করা যাবে।

6g কত স্পিডে পাওয়া যাবে?

স্বাভাবিকভাবেই ইন্টারনেট যে বেশ দ্রুত হবে তা বোঝাই যাচ্ছে। 4g থেকে 5g ছিল ১০ গুণ বেশি, 6g আরো ১০০ গুণ বেশি হবে ফাইভ-জি থেকে। সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়ারলেস কমিউনিকেশন এক্সপার্ট মাহিয়ার শিরভানিমোগদ্দামে মতে, আমরা সিক্স জিবি নেটওয়ার্কে প্রতি সেকেন্ডে 1tb পর্যন্ত গতি পেতে পারি। ধরুন নেটফ্লিক্সের সেরা মানের কনটেন্ট – এর জন্য প্রতি ঘন্টায় প্রয়োজন ফিফটি সিক্স জিবি ডাটা, সিক্স জি গতিতে আপনি প্রতি সেকেন্ডে ১৪২ ঘন্টার নেটফ্লিক্সের সেরা মানের ভিডিও ডাউনলোড করতে সক্ষম হবেন।এই নতুন প্রযুক্তির আসার সাথে সাথে আপনি অনেক নতুন অ্যাপ্লিকেশন এবং পরিষেবা পাবেন।

কী ধরনের প্রযুক্তি আসবে?

ফাইভ-জি আগমনের সঙ্গে সঙ্গে মেটাভার্সের যুগ শুরু হয়ে গিয়েছিল এটা আমরা সকলেই জানি। এলও টি প্রযুক্তি ক্রমাগত বিকশিত হতে চলেছে। আমাদের বাড়ির বাইরে থেকে দরজা পর্যন্ত এখন ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত হয়ে গেছে, ভবিষ্যতে আরও হবে। নতুন নেট স্পিড আসার সঙ্গে সঙ্গে এই ধরনের ডিভাইসের সংখ্যা আরো বেড়ে যাবে।

রিপোর্ট অনুসারে, সিক্স জি নেটওয়ার্ক আসার সঙ্গে সঙ্গে প্রতি বর্গকিলোমিটারে 5g – এর গুণ বেশি ডিভাইস দেখা যাবে। অর্থাৎ আগামী দিনে আরও বেশি নতুন নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে পরিচিত হতে পারি আমরা।