Jio কে ধূলিসাৎ করে দ্রুততম ইন্টারনেট পরিষেবা নিয়ে আসতে চলেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি

বর্তমানে বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে অন্যতম টেসলা (Tesla) ও স্পেসএক্স’র (Space X) মালিক এলন মাস্ক (Elon Mask)। এলনের মোট সম্পদ ১৮ হাজার ৫০০ কোটি (১৮৫ বিলিয়ন) ডলার। ২০২০ তে  শীর্ষ ধনী ব্যক্তি ছিলেন অ্যামাজনের প্রধান কর্মকর্তা জেফ বেজস। এবার ২০২১ এ তাকে  সরিয়ে প্রথম স্থান দখল করলেন এলন। গোটা বিশ্বে ইন্টারনেট পরিষেবায় বিপ্লব ঘটাতে কোমর বাধঁছেন এলন৷

বর্তমানে ইলেকট্রিক গাড়ি ও স্পেস এক্স ছাড়াও ইন্টারনেটের বাজারে বিপ্লব আনতে  ‘মহাপ্লান (Mahaplan)’ এর জন্য প্রস্তুত এলন মাস্ক।  এলনকে মূল লড়াই আমাজনের সিইও জেফ বেজোসের সঙ্গে। আমেরিকা বিশ্বের বেশ কিছু দেশে এই প্রকল্পের কাজ শুরু করে দিয়েছে৷  এলন তার ‘মহাপ্লান ‘ প্রকল্পে সফলতা পেলে  রিলায়েন্স জিও ও এয়ারটেলের মত টেলিকম সংস্থাগুলির কাছে তা রীতিমত আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়াবে৷

পৃথিবীর বাইরে মহাকাশে যে সমস্ত স্যাটেলাইট পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করছে তার মোট পরিমাণ যা তার এক চতুর্থাংশের মালিক এলন মাস্ক।  প্রতিনিয়ত আরো বেশি করে স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠাচ্ছেন এলন। আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই ১২০০০ স্টারলিংক স্যাটেলাইট পাঠানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছেন এলন মাস্ক। এটা সত্যি হলে পৃথিবী থেকে স্যাটেলাইট হয়ে সিগন্যাল ফিরে আসার সময় অনেক কমে যাবে। ফলে আরও অনেক দ্রুত গতির ইন্টারনেট পরিষেবা পাওয়া যাবে।

বিধানসভা অধিবেশন শেষ দিন 72 হাজার কোটি টাকার নতুন প্রকল্পের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতার, থাকছে

এই ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা গেলে পৃথিবীর প্রত্যন্ত জায়গাতেও খুব সহজেই দ্রুতগতির ইন্টারনেট পরিষেবা পাওয়া যাবে। আফ্রিকার সুদূর কোনো গ্রামে যেখানে হয়তো খুব বেশি মানুষেরও বাস নেই সেখানেও  দ্রুত ইন্টারনেট পাওয়া যাবে৷ আমেরিকা থেকে ভারতে তথ্যের আদান প্রদানের ক্ষেত্রে সময় অনেক কম লাগবে৷  ৫জি পরিষেবা দেওয়াও সহজ হবে৷ তবে, এক্ষেত্রে এলনকে সর্বপ্রথম পৃথিবীর দ্বিতীয় ধনী ব্যক্তি জেফ বেনজোর (Jeff Benzo) এর সঙ্গে লড়াই করতে হবে। কারণ জেফ বেনজোও চান বিশাল সংখ্যক স্যাটেলাইট লঞ্চ করতে। কারণেই তিনিও জানেন বেশি সংখ্যক স্যাটেলাইট মানেই যেমন মোটা টাকা ইনকাম হবে তেমনি ক্ষমতাও থাকবে অনেকটা।

এলনের এই প্রকল্প সফল হলে ভারতে সবথেকে চাপে পড়বেন মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)। কারণ বর্তমানে ভারতে সবচেয়ে সস্তা ৪জি ইন্টারনেট পরিষেবা দিচ্ছেন মুকেশ আম্বানি।এবং  ৫জি লঞ্চের প্রস্তুতিও সেরে ফেলেছে  জিও।এখন এলন মাস্কের মহাপ্ল্যান সফল হলে মুকেশ আম্বানির রিলায়্যান্স জিও এবং  ভারতী এয়ারটেল (Bharti Airtel) এর মত টেলিকম কোম্পানিগুলির জন্য তা  খুবই চিন্তার কারণ হবে৷