ভোটের মুখে বড়োসড়ো সুখবর, সরকারের তরফে বাড়ানো হল একাধিক পদে অবসরের সময়সীমা

ভোটের আগেই পাওয়া গেল সুখবর। অবসর গ্রহণের বয়স বেড়ে ৬২ থেকে হল ৬৫। এই প্রস্তাব এতদিন আলোচনার স্তরে ছিল, এবার বাস্তবায়িত হল। কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক পদে অবসর গ্রহণের বয়সসীমা বাড়ানো হয়েছে৷ বুধবারই এই নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে। ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে এই নির্দেশিকা কার্যকর হবে বলে জানা যাচ্ছে৷ মূলত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক পদগুলির জন্যই এই নির্দেশিকা জারি করা  হয়েছে।

একাধিক পদে অবসর গ্রহণের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। এই সব পদ গুলির মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, কন্ট্রোলার অফ এক্সামিনেশন,  ডিন অফ স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার, ডেপুটি রেজিস্ট্রার, ডেপুটি কন্ট্রোলার অফ এক্সামিনেশন, ডেপুটি ইন্সপেক্টর অফ কলেজ, কলেজ ইন্সপেক্টর,  পিজি ও ইউজি কাউন্সিলের সেক্রেটারি ইত্যাদি পদ গুলি রয়েছে৷

চাপ বাড়ল মধ্যবিত্তদের! আবারো বাড়লো রান্নার গ্যাসের দাম, গত তিন মাসে ১০০ টাকার ও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে LPG এর মূল্য

বছর দুয়েক আগেই কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অবসরের বয়স ৬২ বছর থেকে বৃদ্ধি করে ৬৫ বছর করা হয়। তখন উপাচার্যদের অবসরের বয়স ৬৫ থেকে বাড়িয়ে ৭০ বছর করার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর থেকেই  বিষয়টি নিয়ে  আলোচনা চলছিল। এদিন এই ঘোষণায় খুশির আমেজ।  কারণ এইসব প্রশাসনিক পদে বসার জন্য ১০ থেকে ১৫ বছরের অধ্যাপনার অভিজ্ঞতা থাকতে হয়।

তাই এ ক্ষেত্রে অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর বিষয় ভাবা হয়েছিল৷ রাজ্যে একাধিক নতুন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হয়েছে সম্প্রতি। অভিজ্ঞতার নিরিখে সেইসব জায়গায় এই পদগুলিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে। বয়স সীমা বাড়ানোয় আগামীদিনে সুবিধা হবে বলেই আশা করা হচ্ছে৷ যেহেতু উপাচার্য ও অধ্যাপকদের বয়সের সীমা আগেই বাড়ানো হয়েছে, তাই এ ক্ষেত্রে অবসরের বয়স সীমা বাড়ানোর বিষয়টা কাম্য ছিল এই পদাধিকারীদের কাছে।