করোনা দ্বিতীয় তরঙ্গে এক ধাক্কায় অনেকখানি কমেছে প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা, রইল জনমত সমীক্ষার ফলাফল

গোটা দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এর জেরে ব্যাপক হারে বাড়ছে সংক্রমণ৷ করোনা (covid-19) আতঙ্কে ভয়ে কাঁটা হয়ে রয়েছে ভারতবাসী। অন্যদিকে ভারতীয় এবং মার্কিন সংস্থার  এক সমীক্ষার রিপোর্ট এ জানা যাচ্ছে, করোনা মহামারীর এই কঠিন সময়ে জনপ্রিয়তা হ্রাস পেয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (narendra modi), এদিকে মহামারী অন্যদিকে দলের নেতার এই খবরে রীতিমত  অস্বস্তিতে বিজেপি শিবির।

২০১৪ সালে প্রথমবার ভারতের  প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। ৫ বছর পর আবারও ২০১৯ সালে জণগণের রায়ে  দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু মোদীর জামানায়  নানা সমস্যায় জর্জরিত হয়েছে  দেশ। এখন  ভারতের সবথেকে বড় সমস্যা করোনা মহামারী৷ যা ক্রমশ  দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে।

সুখবর! মাত্র 98 টাকাতে BSNL দিচ্ছে রোজ 2 জিবি করে ডাটা ব্যবহারের সুবিধা, একই দামে Jio,Vi, Airtel কেমন দিচ্ছে অফার!
ভারতীয় সংস্থা ‘সিভোটার’ এর সমীক্ষার রিপোর্ট জানাচ্ছে,  গতবছর প্রধানমন্ত্রী মোদীর কর্মকান্ডে দেশের প্রায় ৬৫ শতাংশ মানুষ খুশি ছিলেন৷  কিন্তু এখন মোদীর জনপ্রিয়তা কমে গেছে৷ কমে গিয়ে তা হয়েছে মাত্র  ৩৭ শতাংশ। মার্কিন সংস্থা ‘মর্নিং কনসাল্ট’-র সমীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশ করেছে । তাঁদের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত এপ্রিলে মোদীর জনপ্রিয়তা একধাক্কায় অনেকটা কমে গেছে৷  ২২ পয়েন্ট কমে গিয়ে জনপ্রিয়তা এখন ৬৩ শতাংশে। ২০১৯ সালের আগস্ট থেকে এই হিসেব দেখলে এতখানি কমল এই প্রথম৷

সিভোটার’-র প্রতিষ্ঠাতা যশবন্ত দেশমুখ এর মন্তব্য, ‘বর্তমান সময়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী তাঁর কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছেন’।

২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে এই প্রথম এত মানুষ প্রধানমন্ত্রীর ওপর ক্ষুব্ধ, যদিও এখনও দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় রাজনৈতিক নেতা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷