নতুন খবররাজনৈতিক

মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে দিতে হল মেয়র পদ থেকেও ইস্তফা।

ব্রেকিং নিউজ : মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে মেয়রের পদ থেকেও দিতে হল ইস্থফা ।জনা গিয়েছে যে ,গত এক বছর ধরেই শোভনের সাথে মুখ্যমন্ত্রীর ততটা খাপ খাচ্ছিল না। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের পারিবারিক জীবনে এক অশান্তির বাতাবরণ সৃষ্টি হয়েছিল তারই প্রভাব শোভনের রাজনৈতিক জীবনে উপর পড়ছিল। তার প্রভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের দল ও শোভন চট্টোপাধ্যায় এর মধ্যে একটা টানাটানির সমস্যা তৈরি হয়েছিল। গত বছর শোভন চট্টোপাধ্যায় এই অশান্তির কারণে তিনি তার বেহালার বাড়ি ছেড়ে গোলপার্কের বাড়িতে চলে আসেন এবং দলের সাথে এর পর থেকে তার দূরত্ব বাড়তে থাকে।

যদিও মুখ্যমন্ত্রী অনেকবার তাকে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন এবং অনেকবার ভালোভাবে কাজ করার সুযোগও দিয়েছেন । এর আগেও শোভন চট্টোপাধ্যায় ২ থেকে ৩ বার ইস্থফা দিয়েছিলেন কিন্তু প্রতিবারই দলনেত্রী তাকে বুঝিয়ে সুঝিয়ে আবার দলে ফিরিয়ে এনেছেন।

২০১৬ সালে আবার তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর শোভন চট্টোপাধ্যায় দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার সভাপতি হয় । তার সাথে সাথে তিনি কলকাতার মেয়র পদেও বসেন । সুতরাং , শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কার্য করার সীমানা অনেক বড়ো কিন্তু কিছুদিন আগে এক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শোভন চট্টোপাধ্যায়ের হাত থেকে পরিবেশ দপ্তর নিয়ে শুভেন্দু অধিকারিকে দিয়ে দেন।

এতদিন ধরে টানাটুনির পর শেষমেশ এক অনুষ্ঠানে সভায় শোভন চট্টোপাধ্যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে ইস্থফার চিঠি পাঠিয়ে দেন, এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছুক্ষণ প্রতীক্ষা করার পর ইস্থফা মঞ্জুর করেন এবং এই চিঠি রাজ্যপালের কাছে পাঠিয়ে দেন । এছাড়াও দলনেত্রী হিসাবে মমতা ব্যানার্জি আদেশ দিয়েছেন তাকে, ‘মেয়র পদ থেকেও ইস্তফা দেওয়ার জন্য ‘।

Related Articles

Back to top button