টেক নিউসনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

আবারও বাড়তে চলেছে রিচার্জ প্ল্যানের দাম! আগামী মাস থেকেই লাগু করা হবে নতুন রিচার্জ প্ল্যান…

টেলিকম বাজারে প্রতিযোগিতা কতটা বেড়েছে তা আমরা সকলে ভালোভাবে বুঝতে পারছি টেলিকম কম্পানীগুলো ভারতের মাটিতে কাউকে একচুলও জায়গা ছেড়ে দিতে চাইছে না। তবে দেশের মাটিতে অন্যান্য টেলিকম সেক্টরের তুলনায় জিও অফারের দিক থেকে বলা হোক সবার আগে এগিয়ে থাকে, যেকোনো উৎসবের মরসুমে হোক না কেন জিও তাদের গ্রাহকদের মাতিয়ে তোলার জন্য একের পর এক দুর্দান্ত অফার নিয়ে হাজির হয়।

 

আর একথা বললে ভুল হবে না যে জিও যবে থেকে টেলিকম সেক্টরে আত্মপ্রকাশ করেছে তখন থেকে টেলিকম কোম্পানী গুলির মধ্যে প্রতিযোগিতা আগের তুলনায় এখন অনেক বেড়ে গেছে,তা সে রিচার্জ প্ল্যানের দিক থেকে হোক কিংবা নতুন নতুন অফার এর দিক থেকেই হোক না কেন। যেমনটা আমরা জানি গত বছর এই টেলিকম সংস্থাগুলি তাদের রিচার্জ প্ল্যানের দাম প্রায় 40 শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছিল আর আগামী দিনেও তারা তাদের রিচার্জ প্ল্যানের দাম বৃদ্ধির কথা জানিয়েছিল।

এই টেলিকম সংস্থাগুলি জানিয়েছিল তারা একবারে এই রিচার্জ প্ল্যানের দাম বৃদ্ধি করবে না বরং ধাপে ধাপে এই পর্যায়ে এগোবে তারা আগামী দিনে। আর এখন যে খবরটি ভোডাফোন, এয়ারটেল সংস্থার তরফ থেকে বেরিয়ে আসছে সেখানে জানতে পারা যাচ্ছে তারা আগামী সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবর মাসের মধ্যেই রিচার্জ প্লানের দাম আবারো 2-5 শতাংশ হারে বৃদ্ধি করতে চলেছে। এখানেই শেষ নয় তারপর আবারও ছয় মাসের মধ্যে আরও 10 শতাংশ হারে বাড়ানো হবে রিচার্জ প্ল্যানের এর দাম।

 

যদিও এর আগে গত বছরই টেলিকম সংস্থাগুলি তরফ থেকে একথা জানানো হয়েছিল তারা তিনটি ধাপে আগামী দিনে বাড়াতে চলেছে রিচার্জ প্ল্যানের দাম, যেখানে প্রথম ধাপটি সম্পন্ন হলেও পরবর্তী দুটি ধাপ আটকে পড়ে যায় দেশজুড়ে করোনা মহামারীর কারণে।এবার দ্বিতীয় ধাপটি সম্পন্ন হতে চলেছে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবর মাসের মধ্যে, আর তারপর আবার তৃতীয় পর্যায়ের ধাপটি আগামী 6 মাসের মধ্যেই সম্পন্ন হবে যেখানে রিচার্জ প্ল্যান এর দাম প্রায় 10% হারে আরো বৃদ্ধি পাবে।


এ বিষয়ে টেলিকম সংস্থাগুলি তরফ থেকে এক বিবৃতি বেরিয়ে এসেছে যেখানে তারা জানিয়েছেন করোনা মহামারীর কারণে তাদেরকে বিপুল অর্থিক ক্ষতির বোঝা বইতে হয়েছে আর এবার সেই ক্ষতি কমানোর পালা।অন্যদিকে টেলিকম বিশেষজ্ঞদের মত অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতিতে যে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে বলে দাবি করছে এই ভোডাফোন, এয়ারটেল সংস্থা তাতে রয়েছে সন্দেহ। কারণ এই লকডাউনকালে দেখা মিলেছে Jio,BSNL সহ ভোডাফোন, এয়ারটেলের গ্রাহক সংখ্যা বাড়তে।তাছাড়া এই লকডাউনকালে বিভিন্ন টেলিকম সংস্থাগুলি একাধিক প্ল্যানের মাধ্যমে গ্রাহকদেরকে পরিষেবা প্রদান করেছে।

যদিও এই মুহূর্তে আনলক পরিস্থিতি চালু করা হয়েছে দেশজুড়ে, তবে পরিস্থিতি খুব একটা স্বাভাবিক অবস্থায় আসেনি তাই এই মুহূর্তে যদি এই দুটি মুখ্য টেলিকম সংস্থা ভোডাফোন ও এয়ারটেল তাদের রিচার্জ প্ল্যানের দাম এইভাবে বাড়িয়ে দেয় তাহলে সাধারণ মানুষেরা এর জেরে বিপাকে পড়বেন বলে মনে করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button