মিশন 2020 তে নয়া পরিকল্পনা তৃণমূলের! প্রতিটি বুথে নিয়োগ করা হবে একজন করে মহিলা কর্মী…

দলের মহিলাদের আরো সংগঠিত করতে চাইছে তৃণমূল দল, যার দরুন এই মহিলা বাহিনীকে দিয়েই এবার পুরভোটে জয় হাসিল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। একথা দলীয় বৈঠকে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার্তা দিয়ে জানিয়েছেন তিনি নিশ্চিত করে জানিয়ে দিয়েছেন পৌর এলাকায় প্রতিটি বুথ থেকে অন্তত একজন করে মহিলাকর্মীকে এগিয়ে আনতে হবে। এবার তৃণমূল সরকার চাইছে সংগঠনের দিকে থেকে নারী শক্তি কে এগিয়ে নিয়ে যেতে,আর তারই সাথেই চাইছে সরকারের উন্নয়নমূলক যে কাজগুলো করছে সেগুলো যাতে প্রত্যেকটি ঘরে ঘরে পৌঁছে যায়।

এক্ষেত্রে এই কাজটা করার জন্য মানুষের হেঁসেলে সরকারের উন্নয়ন বার্তা পৌঁছে দেওয়ার কাজটা মহিলাদের থেকে ভালো আর কেউ করতে পারবে না।যার দরুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এরকম এক নির্দেশ দেন নির্দেশ পাওয়ামাত্র দলের মহিলা শাখার সভানেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানান প্রতিটি জেলার পৌরসভা এলাকা থেকে অন্তত একটি করে মহিলা কর্মীর নাম নিতে হবে যাদের দ্বারা এই কাজটি সম্পন্ন করা হবে।

প্রতিটি বুথের ন্যূনতম একজন করে মহিলাকে নিয়ে কর্মী সভা গঠন করা হবে 15 ই জানুয়ারির মধ্যে। তবে এখানেই শেষ নয় এইদিন তিনি আরো বলেন অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের ও এবার এগিয়ে আসতে হবে তাদের কাজের দায়িত্ব দেওয়া হবে মহিলা শিশু কল্যাণ এর যাবতীয় উন্নয়ন ঘরে ঘরে পৌঁছে দেবার জন্য। ইতিমধ্যেই চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য্য মমতা সরকারের উন্নয়নকে হেঁসেলে ঢুকিয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে  তৃণমূল অঙ্গনওয়াড়ির কর্মীদের বেছে নিয়েছেন।

তবে এখন কর্মসূচির মাধ্যমে মহিলাদেরকে আরো বেশি করে সক্রিয় করে তৃণমূল সংগঠনকে মজবুত করার প্রধান লক্ষ্য রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের।এক্ষেত্রে যাতে সরকারের কাজ বেশি করে মানুষের চোখে পড়ে এবং মহিলাদের অগ্রণী ভূমিকা নিতে দেখা যায় তার জন্যই করা হচ্ছে এই পরিকল্পনা।তবে বলে রাখি কীভাবে চলবে এই কাজ? যার দরুনই প্রচারের জন্য 24 শে নভেম্বর দক্ষিণবঙ্গের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের নিয়ে একটি কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে ক্ষুদিরাম অনুশীলন কেন্দ্র।

Related Articles

Close