বউ আমার সবচেয়ে বেশি সুন্দরী! সানা খানকে বিয়ে করে প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন মৌলানা

নববর্ষ উপলক্ষ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সানা খানের প্রশংসা করলেন স্বামী মুফতি আনাস সৈয়দ। ইনস্টাগ্রামে সানার সঙ্গে তাদের বিয়ের ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে আনাস লিখেছেন তার সৌন্দর্য তাঁকে জান্নাতের কাছাকাছি পৌঁছে দিয়েছে। খোদার কাছে এর জন্য তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন বিয়ের পরে আধ্যাত্বিকতার পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সানা, তাহলে দিব্যি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছেন হানিমুনে যাচ্ছেন। সমস্ত রকমের পার্থিব সুখ ভোগ করছেন কিভাবে? জোর চর্চা নিয়ে এইসব নিয়ে।

 

২০২০ তে বিয়ে করেন সানা৷ তার কিছুদিন পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সানার কিছু ছবি ভাইরাল হয়। অনেকেই দাবি করেছিলেন তার স্বামী আনাস ছবিগুলোকে ভাইরাল করেন। যদিও সানা নিজেই ছবিগুলো শেয়ার করেন৷ কাশ্মীরের গুলমার্গ এ তাদের হানিমুনের ছবি পোস্ট করেছিলেন সানা। সানা অভিনীত ওয়াজা তুম হো ফিল্মের একটি গানের দৃশ্যে সানার পরনে ছিল একটি অন্তর্বাস। ছবিটির সঙ্গে হানিমুন এর একটি ছবি কোলাজ করা হয়েছিল।

 

 

Sana Khan

কিন্তু বিয়ের সানা আগেই জানিয়েছিলেন তিনি আর সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করবেন না। ফিল্মি কেরিয়ারে ইতি টানবেন। তাহলে নতুন করে আবার এসব করছেন কেন? আফসোস হচ্ছে কি? কিছুদিন আগেই বিয়ের এক মাস পূর্তি উপলক্ষে একটি ভিডিও শেয়ার করে লেখেন, জীবনের সেরা সিদ্ধান্ত ছিল বিবাহ।

বিয়ের পরে নিজের নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম রাখেন সৈয়দ সানা খান। গুজরাটের ব্যবসায়ী মুফতি আনাস সৈয়দকে বিয়ে করেছেন তিনি। মুসলিম রীতিতে বিয়ে হয় দুই পরিবার এবং ঘনিষ্ঠ আত্মীয় স্বজনদের উপস্থিতিতে। ঘরোয়া অনুষ্ঠানে হিজাব পরে বিয়ে করেন সানা। নিজের বিয়ের ছবি শেয়ার করে লিখেছিলেন ভগবানকে সন্তুষ্ট করার জন্য তিনি এবং আনাস পরস্পরকে ভালোবেসেছেন। জান্নাতে তারা মিলিত হবেন।

রক্ষণশীল পরিবারের মেয়ে সানা বিয়েও করলেন রক্ষণশীল পরিবারে। শ্বশুরবাড়ির শর্ত মেনে অভিনয় জীবনের ইতি টেনে ছিলেন। এ বিষয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। বর্তমান পরিস্থিতিতে মেয়েদের উপার্জনশীল হবে যেখানে প্রয়োজন একটি মেয়ের আর্থিক স্বাধীনতা যেখানে তার সুন্দর ভবিষ্যত গঠন করে সেখানে একজনের আর্থিক স্বাধীনতার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে পরিবার৷ এ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। ভালো বউ হওয়ার জন্য কেন নিজের কেরিয়ার বিসর্জন দিতে হবে প্রশ্ন ওঠে।

শীতে উষ্ণ গরম জলেই সুস্থ থাকবে শরীর, নিয়মিত পান করলে মিলবে নিশ্চিত উপকারিতা

যদিও সানা জানিয়েছিলেন তিনি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি থেকে অর্থ ভালোবাসা সবকিছু পেলেও মৃত্যুর পরের জীবন তাকে খুব ভাবায়। অনেক মনোবিদদের মতে কোন কারণে হতাশা কাজ করছে। এজন্যই তিনি মৃত্যুর পরের জীবন নিয়ে যাচ্ছে। আধ্যাত্মিকতার কথা বললেও বিয়ের সময় দামী অলঙ্কার এসব কিছুই তার দ্বৈত সত্তার প্রমাণ দেয়। মুখে বলা কথা এবং কাজের ক্ষেত্রে মিল থাকেনা।

বিগ বসের প্রতিযোগী হিসেবে এসেছিলেন সানা। রক্ষণশীল মুসলিম পরিবার থেকেই তার লড়াই করে অভিনয় জীবন শুরু করার ঘটনা জানিয়েছিলেন। সেই সানাই আবার কি করে রক্ষণশীল জীবনে ফিরে গেলেন? হঠাৎ তার বিয়ে হয়ে যাওয়ায় নেটিজেনদের মধ্যে প্রশ্ন জাগতে শুরু করেছে তাহলে কি পারিবারিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করেছেন সানা!