চাকরির বয়স সীমাতে আসতে চলেছে বড় পরিবর্তন শীঘ্রই ঘোষণা করতে চলেছেন মোদী সরকার…

এবার অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া উচ্চবর্ণের মানুষদের জন্য চাকরির ক্ষেত্রে বয়সের ছাড় মিলতে পারে সূত্রের খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে যে এবার সামাজিক ন্যায়বিচার মন্ত্রকের তরফ থেকে কর্মচারী মন্ত্রকে এ বিষয়ে একটি চিঠিও পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। তবে এরই সাথে বলে রাখি এই চিঠিতে ST, SC ও OBC দের মত সাধারন বিভাগের আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়াদের জন্যই সরকারি চাকরিতে বয়স এর ছাড় দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

তবে এখনো পর্যন্ত প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে এটা কতটা পরিমানে হবে তা পুরোপুরি নির্ভর করবে কর্মী মন্ত্রকের ওপর। কারণ এই বিষয়টি এখন তাদের ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তবে যাই হোক এই বিষয়টি নিয়ে খুব জলদিই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে চলেছে বলে জানতে পারা গেছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী আরো জানতে পারা যাচ্ছে এই বিষয়ে ইতিমধ্যে কাজ শুরু হয়ে গেছে কেননা আগামী মাসের মধ্যেই ইউপিএসসি জন্য বিভিন্ন জায়গায় নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হতে চলেছে। যাতে শূন্য পদের সংখ্যা রয়েছে অনেক।

তবে যাই হোক এই বিষয়টিকে গত শুক্রবার দিন রাজ্যসভায় উত্থাপন করা হয়েছিল। আর এটি উত্থাপন করেছিলেন বিজেপি সাংসদ নরসীমা রাও। তিনি সরকারকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার নিয়ে দাবি করেছিলেন।এরই সাথে তিনি আরও জানিয়েছিলেন যে সরকার ও সাধারণ শ্রেণীর আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া অংশগুলিকে নিয়ে সংযুক্ত করার কাজ করছে ইতিমধ্যে। আর এক্ষেত্রে চাকরির বয়স বাড়ানো হলে তারাও সুবিধা পাবে।

তবে বলে রাখি এই এর আগে গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে সরকার সংবিধানে কিছু সংশোধন করেছিল এবং যেখানে বলা হয়েছিল এবার থেকে সাধারণ শ্রেণীর আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়াদের জন্য 10% সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বর্তমানে যেমনটা আমরা জানি এই মুহূর্তে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে SC কিংবা ST জন্য পাঁচ বছর ও ওবিসি দের জন্য তিন বছরে ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। আর অন্যদিকে বর্তমানে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে বয়সসীমা সাধারন বিভাগের প্রার্থীদের জন্য 32 বছর OBC দের জন্য 35 বছর আর এসটি-এসসি দের জন্য 37 বছর নির্ধারিত রয়েছে। তবে আগামী দিনে এই ক্ষেত্রে কী বড়ো পরিবর্তন হতে চলেছে তা তো সময় মাত্রই বোঝা যাবে।

আরও পড়ুন :