সরকার থেকে প্রতিটি গাড়ি চালকদের জন্য লাগু করা হলো তিনটি নতুন নিয়ম না মানলে দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা।

আজ আমরা আলোচনা করতে চলেছি সরকার দ্বারা লাগু করা তিনটি নতুন নিয়ম সম্বন্ধে যা প্রত্যেকটি গাড়ি চালক কে জানা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এই নতুন নিয়ম উলংঘন করলে আপনাকে দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা।যদি আপনার কাছে কোন প্রকার যানবাহন থাকে তাহলে এই খবরটি আপনি পুরো পড়বেন কারণ সরকার এবং পরিবহন দপ্তর দ্বারা লাগু হয়েছে তিনটি নতুন নিয়ম যা মানা অত্যন্ত বাঞ্ছনীয়, নিয়ম না মানলে দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা। তাই আপনারা অনুগ্রহ করে তিনটি নিয়ম সম্বন্ধে জেনে রাখুন নইলে আপনাকে পড়তে হতে পারে বিপদে।

প্রথম নিয়ম:- আপনার বাইক যদি কোনো 18 বছরের কম বয়সী ছেলে অথবা মেয়ে চালায় এবং সেই যদি চলন্ত বাইকের সাথে রাস্তায় পুলিশের হাতে ধরা পড়ে তাহলে গাড়ির মালিককে দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকার জরিমানা ।তাই অনুগ্রহ মনে রাখবেন আপনার বাইকটি কোন প্রকারে যেন আঠারোর কম বয়সী ছেলেকে অথবা মেয়েকে চালাতে না দেওয়া হয়, না হলে আপনাকে দিতে হতে পারে জরিমানা।

দ্বিতীয় নিয়ম:-আপনি যদি এখন কোন নতুন মোটরসাইকেল কিনতে চাইছেন তাহলে আপনাকে মোটরসাইকেল নেবার সাথে সাথে ৫ বছরের ইন্সুরেন্স, আর যদি কোনো কার নিতে চাইছেন তাহলে আপনাকে করাতে হবে দু বছরে ইন্সরেন্স যা এখন থেকে করা অনিবার্য। আপনি যদি এটি না করান তাহলে গাড়ির কাগজ চেক করলে আপনাকে দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা ।

তৃতীয় নিয়ম:-বন্ধুরা আপনাদের বলে রাখা ভালো তৃতীয় নিয়মটি অনেক বিচার-বিবেচনার পরই করা হয়েছে। তৃতীয় নিয়ম টিতে বলা হয়েছে যদি আপনি বাইক চালাতে চালাতে কোন ব্যক্তির সঙ্গে ফোনে কথা বলেন তাহলে আপনাকে দিতে হতে পারে জরিমানা। দ্বিতীয়তঃ বলা হয়েছে যদি আপনি মদ্যক অবস্থায় অথবা নেশা গ্রস্ত গাড়ি চালান তাহলে আপনাকে জরিমানা দিতে হতে পারে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত। কারণ বেশিরভাগ সড়ক দুর্ঘটনা এই কারণের জন্যই লক্ষ্য করা যায়।তাই সরকার অনেক বিচার-বিবেচনার পড়েই এই নিয়মটি লাগু করার ব্যবস্থা করেছেন যারা ফলে আশঙ্কা করা যাচ্ছে সড়ক দুর্ঘটনার হাত থেকে অনেকটা রক্ষা পাওয়া যাবে এবং নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালানোর যে প্রকোপ সেটা কিছুটা হলেও কমবে।কারণ আপনারা সবাই জানেন যে আমাদের দেশে সবচেয়ে বেশি সড়ক দুর্ঘটনা হয় নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালানোর জন্যই।