কলকাতাদেশনতুন খবরবিশেষ

রাজ্যজুড়ে কাটমানি রুখতে সরকারের নতুন ঘোষণা এবার ১ লাখ বেকারকে দেওয়া হবে ২ লাখ টাকা করে…

এবার রাজ্য সরকার কর্মসাথী”দের জন্য নতুন অ্যাপ তৈরি করলেন, যার মধ্যে নাম নথিভুক্ত করে পেয়ে যাবে টাকা সেই আবেদনকারী। আর এই কথা খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কালিয়াগঞ্জ এর এক প্রশাসনিক এক সভা থেকে ঘোষণা করে জানিয়ে দিলেন। এর আগে রাজ্যের বাজেট পেশ করার  সময় কর্মসাথী প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিলেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। আর এই প্রকল্পের জন্য 500 কোটি টাকা বরাদ্দের কথা বলেছেন তিনি।

এর মাধ্যমে প্রতি বছর 1 লাখ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে দেয়া হবে। অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী জানতে পারা যায় এই নতুন কর্মসাথী প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের বেকার যুবক-যুবতীদের সমবায় ব্যাংকের মাধ্যমে ঋণ দান করা হবে। এইদিন কালীগঞ্জের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করেন কর্ম সাথী প্রকল্পের দরুন এক লাখ ছেলে-মেয়েদের দু লাখ টাকা করে দেওয়া হবে। আর এখানে বেকার যুবক যুবতীদের ব্যবসায়ে উৎসাহ দানের জন্য এই অর্থ সাহায্য করা হচ্ছে।

এক্ষেত্রে সরকার কর্মসাথী জন্য অ্যাপ তৈরি করে দিচ্ছে তবে ঋণের জন্য বিডিও অফিসে আবেদন করতে হবে সেই যুবক-যুবতীদের তারপর ওখানে নাম নথিভুক্ত করলে অ্যাপের মাধ্যমে টাকা চলে আসবে। আর এই অভাবনীয় নতুন পদক্ষেপ টি এই কারণে নেওয়া হয়েছে যাতে মাঝখানে এই টাকা কেউ খেতে না পারে। আর সেই জন্যই এরকম এক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে একথা খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও জানান।এইদিন প্রশাসনিক সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী জানান যাতে এই টাকার জন্য অন্য কারো কাছে যেতে না হয় সাহায্য নিতে সেটিকে মাথায় রেখেই নেওয়া হয়েছে এই নতুন পদক্ষেপটি।

তবে এবার 2020 এর রাজ্য বাজেটে কর্মসাথী প্রকল্প ছাড়াও বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য প্রকল্প এনেছে রাজ্য সরকার। যার মধ্যে রয়েছে হাসির আলো প্রকল্প এর মাধ্যমে গরিব পরিবারেরা বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করবে রাজ্য। এই “হাসি আলো প্রকল্পের”- আওতায় যারা তিন মাসের মধ্যে 75 ইউনিট করে বিদ্যুৎ ব্যবহার করে থাকেন তারা কিন্তু এক্ষেত্রে বিনাশুল্কে বিদ্যুৎ পরিষেবা পেয়ে যাবেন।এছাড়াও রয়েছে “চা সুন্দরী”- প্রকল্প যার মাধ্যমে রাজ্যের বিভিন্ন চা-বাগানের স্থায়ীভাবে কর্মরত রয়েছেন তাঁরা এই চা সুন্দরী প্রকল্পের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন বসবাসযোগ্য আবাসন। এরই সাথে রাজ্যজুড়ে ক্ষুদ্র শিল্পকে উৎসাহ করতে রাজ্যে আরও 100 টি এমএসএমই পার্ক তৈরি করবে রাজ্য সরকার।

Related Articles

Back to top button