সেপ্টেম্বর মাসেও একাধিক দিন জারি থাকবে রাজ্যে পূর্ণ লকডাউন তার পাশাপাশি রাজ্যজুড়ে স্কুল কলেজ খোলা নিয়ে বড় মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর

করোনা আবহে সাধারণ মানুষের রাতের ঘুম উড়ে গেছে, ভারতে দিন দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।ভারতে এখনো পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 32 লক্ষ 34 হাজার 623 জন।যাদের মধ্যে পশ্চিমবাংলায় যদি করোনা সংক্রমণে কথা বলা হয় তাহলে এই মুহূর্তে পশ্চিমবাংলাতে করোনা সংক্রমিত ব্যক্তি রয়েছেন 1,44,801 জন। যেখানে শুধুমাত্র করোনা এর জেরে পশ্চিমবাংলাতে প্রাণ হারিয়েছেন 2909 জন। আর গোটা ভারতের আখড়া তুলে ধরলে এই মহামারীর জেরে প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় 59 হাজার 449 জন।

 

করোনা সংক্রমণ রুখতে মার্চের শুরুতেই লকডাউন জারি হয়েছিল দেশে। স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল বাংলাও। জুন থেকে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করে জনজীবন। খোলে অফিস-কাছারি। রাস্তায় নামে বাস-অটো-ট্যাক্সি। কিন্তু সেই আনলক পর্যায়ে বাংলায় একধাক্কায় অনেকখানি বেড়েছিল সংক্রমণের হার। সেই কারণ রাজ্যের তরফে ফের লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। স্থির করা হয়, প্রতি সপ্তাহের নির্দিষ্ট দিনে রাজ্যে জারি থাকবে কমপ্লিট লকডাউন। তবে এই বিষয়ে আজ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নে এক বৈঠকের আয়োজন করেছিলেন যেখানে তিনি জানালেন রাজ্য জুড়ে করোনা মহামারীর কারণে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের 20 তারিখ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজ।


তাই স্কুল কলেজ ভিত্তিক যে সমস্ত পরিকল্পনাগুলি নেওয়া হবে আগামী দিনে সেগুলি রাজ্যের বর্তমান করোনা পরিস্থিতির উপর বিচার-বিবেচনা করে নেওয়া হবে। তবে এখানেই শেষ নয় এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী আরো জানালেন যেমনটা চলতি মাসে অর্থাৎ এই আগস্ট মাসে যে রকম ভাবে নির্দিষ্ট দিনে রাজ্যে পূর্ণ লকডাউন করা হয়েছে ঠিক সেরকম করা হবে আবারও সেপ্টেম্বর মাসে ও।যার দরুন আজকে সম্পন্ন হওয়া এই নবান্নের বৈঠক থেকে আপাতত তিনটি দিন তুলে ধরেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেপ্টেম্বর মাসের। যেখানে তিনি জানিয়েছেন আগামী 7 সেপ্টেম্বর, 11 সেপ্টেম্বর ও 12 সেপ্টেম্বর তারিখ বাংলায় পূর্ণ লকডাউন জারি থাকবে।

আর তারপর আবারও কোন কোন দিন রাজ্যে লকডাউন করা হবে তা রাজ্য সরকারের তরফ থেকে পরবর্তীকালে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি আজকের এই বৈঠকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার পরেই মুখ্যমন্ত্রী জানান আগামীদিনের নিয়ম মেনে যদি মেট্রোরেল ও লোকাল ট্রেন চলে তাহলে রাজ্যের কোন সমস্যা নেই। মূখ্যমন্ত্রী বলেন সোশ্যাল ডিসটেন্স মেনে মেট্রোর এবং লোকাল ট্রেন চলতে পারে আগামী 1 সেপ্টেম্বর থাকে তবে তাতে কোন অসুবিধা থাকবে না কিন্তু এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার যদি একবার রাজ্যের সঙ্গে কথাবার্তা করে নেয় তাহলে ভালো হয়।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল যে সেপ্টেম্বর থেকে আবারও দেশজুড়ে বিভিন্ন শহরে চালু হতে পারে মেট্রো পরিষেবা। এর আগে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লির মেট্রো পরিষেবা চালু করার জন্য দাবি জানিয়েছিলেন। এবার মেট্রো পরিষেবা কে নিয়ে রাজ্যের বক্তব্য জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।