সপ্তদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন 30 টি বিল পাশে সাফল্যের নজির গড়লেন মোদীর সরকার, চারিদিকে জয় জয় কার..

গণতন্ত্রের মূল স্থান হল সংসদে তা আমরা কমবেশি সবাই জানি। নরেন্দ্র মোদীর সরকারের দ্বিতীয় ইনিংসে নজির গড়েছে বলে জানা যাচ্ছে বিশেষজ্ঞ মহলে।দ্বিতীয় ইনিংসে শুরু থেকে একের পর এক চমক দিতে শুরু করেছে মোদি সরকার। সপ্তদশ লোকসভার ফলাফলের পর শুরু হয়েছে অধিবেশন, আর এই অধিবেশন শেষ হতে আরও তিন দিন বাকি রয়েছে। অধিবেশন শেষ তিন দিন বাকি থাকতেই ইতিমধ্যেই 30 টি বিল পাশ হয়ে গিয়েছে। সরকার দাবি করেছে 1952 সালের পর এবার প্রথম সপ্তদশ লোকসভা অধিবেশন সফল হয়েছে।

সেই সময় 64 দিনের মধ্যে 27 টি বিল পাশ হয়েছিল।সপ্তদশ লোকসভায় এই সাফল্যের পিছনে স্পিকার ওম বিড়লা বলেন, ‘ সংসদে যে কাজ করা হচ্ছে তা সমস্ত জনগণকেই জানতে হবে। লোকেদের যে আত্মবিশ্বাস রয়েছে তা আমাদেরকে ফিরিয়ে আনতে হবে। সমস্ত দেশবাসী আমাদের উপর অনেক প্রত্যাশা করেন।’ নরেন্দ্র মোদির মন্ত্রিসভায় এক প্রবীণ মন্ত্রী বলেন, ‘ স্পিকার সংসদ চলাকালীন প্রত্যেকদিন সকাল সাড়ে নটায় সংসদে আসেন। শুধু এটাই নয় সভা শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা পর বাড়ি ফেরেন।


যেদিন যে বিষয়ের উপর বিল পেশ করা হবে সেই বিষয় নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে সচিবের সঙ্গে সেই বিল এবং তার পরিণতি সম্পর্কে সমস্ত কিছু আলোচনা করেন।’এরকম পরিস্থিতি দেখে তিনি বলেন,’ বর্তমানে আমরা এই ধরনের স্পিকার দেখিনি যিনি আইনের বিভিন্ন দিক আলোচনা করে তবেই এগিয়ে যান।’ দ্বিতীয়বার বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে ক্ষমতায় আসার পর সংসদ সদস্যদের নিয়মানুবর্তিতা, শৃঙ্খলার কথা তুলে ধরেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরপর জুলাই মাসে সংসদের মন্ত্রীদের এগিয়ে যাওয়া নিয়ে সমালোচনা করেন তিনি। বিরোধীদের সাথে প্রতিযোগিতা না করে, সকলের স্বার্থে কাজ করার কথা বলেন তিনি। এছাড়াও এবিষয়ে তিনি বলেন, ‘ সংসদে নির্বাচিত হয়ে আসার পর পক্ষ বিপক্ষ ভুলে যাওয়া উচিত সবাইকে।

নিরপেক্ষভাবে বিভিন্ন ইস্যুতে আমাদের সবাইকে চিন্তাভাবনা করা উচিত। এবং সাধারণ মানুষের স্বার্থে সব সময় কাজ করা উচিত।’

Related Articles

Close