বাতিল করা হল কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা, এবার পড়ুয়াদের নাম্বার দেওয়া হবে..

গত দুদিন আগে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে বর্তমানে ছাত্র-ছাত্রীদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই বাতিল করা হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের পরীক্ষা। তবে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল হওয়ার পর থেকেই একাধিক জল্পনা হতে শুরু করেছিল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত পরীক্ষাগুলি কে নিয়ে তবে গতকাল সেই বিষয়ে বেরিয়ে এল বিজ্ঞপ্তি সেই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে এবার করোনা আবহে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় সমস্ত পরীক্ষা বাতিল বলে ঘোষণা করেছে রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দপ্তর।

তাই নয় এর পাশাপাশি এ কথাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ক্যাম্পাসে গিয়েও কোনো পরীক্ষা নেওয়া হবে না। তবে কীসের উপর ভিত্তি করে দেওয়া হবে পড়ুয়াদের নম্বর? এ বিষয় নিয়েও ইতিমধ্যে বিজ্ঞপ্তি বেরিয়ে এসেছে যেখানে জানানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের আগের পরীক্ষার ভিত্তিতে চূড়ান্ত বর্ষের পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে এবং বাকিদের সরাসরি পাস করিয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। গত দুদিন আগেই রাজ্য সরকারের তরফ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিল করার ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছিল আর তারপরেই বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের পরীক্ষার সময় সীমা নিয়ে উঠছিল একাধিক প্রশ্ন তাহলে তাদের সাথেও কী ঠিক এরকমটাই হবে, না অন্য কিছু?

গতবার রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দপ্তরের সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে উপচার্যদের অ্যাডভাইজারি দিয়ে জানানো হয়েছে বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো ভাবে পরীক্ষা নেওয়া যাবে না।আর অন্যদিকে এক্ষেত্রে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে আগের পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর 80% অনুযায়ী মূল্যায়ন করা হবে। এতদিন পর্যন্ত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা যতগুলি সেমিস্টার দিয়েছেন প্রত্যেকটির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ নাম্বার 80 শতাংশ গ্রাহ্য হবে আর বাকি যে 20 নম্বরটি রয়েছে সেটি অ্যাসাইনমেন্ট এর উপর ভিত্তি করে দেওয়া হবে।

আর এর উপর ভিত্তি করে আগামী 31 শে জুলাই এর মধ্যে ফল প্রকাশ করা হবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।আর এক্ষেত্রে যদি কারও নাম্বার নিয়ে কোনো সংশয় থাকে তাহলে সে নিজের সংশয় দূর করতে নতুন করে পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারেন, আর এই পরীক্ষাটি তখনই নেওয়া হবে যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।সে ক্ষেত্রে ইচ্ছুক পরীক্ষার্থীদেরকে পরবর্তী পরীক্ষার যে নম্বরটি রয়েছে সেটি চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। এছাড়া যেসব পরীক্ষার্থীরা চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষার্থী নয় এমন পরীক্ষার্থীদের সরাসরি পরবর্তী বর্ষে উত্তীর্ণ করে দেওয়া হবে।

দুইদিন আগেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে আগামী জুলাই মাসের মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের চেষ্টা করা হবে।আর শুধু তাই নয় এক্ষেত্রে উচ্চমাধ্যমিকে যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে জানানো হয়েছে যে পদ্ধতিতে পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হচ্ছে সেই পদ্ধতিতে প্রাপ্ত নম্বর যদি কোনো পরীক্ষার্থীর অসন্তুষ্টি বোধ হয় তাহলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শুধুমাত্র সেই পরীক্ষার্থীর জন্য বাকি বিষয়গুলি লিখিত পরীক্ষার ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে আর ওই পরীক্ষায় যে নম্বর সে পাবে সেটি চূড়ান্ত বলে ঘোষণা করা হবে। উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ যথাসময়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ওই পরীক্ষার্থীদের জন্য বাকি লিখিত পরীক্ষাগুলোর দিনক্ষণ বা নির্দিষ্ট নিয়মাবলী প্রকাশ করবে।

Related Articles

Close