কেন্দ্র সরকারের বড় ঘোষণা আগামী বছরের মধ্যেই 4 লক্ষ শূন্য পদে হতে চলেছে কর্মী নিয়োগ

আর্থিক দুরবস্থা এবং বেকারত্ব নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধী দল বারবার প্রশ্ন করে আসছে। আর এমন একটি সময়ে কেন্দ্রীয় সরকার নিয়োগের কথা ঘোষণা করে দিল। চলতি বছর এবং আগামী বছরের মধ্যে মোদি সরকার কয়েক লক্ষ শুন্য পদে কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে।ইতিমধ্যেই এই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। লোকসভায় এক লিখিত জবাবে এ কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং।

অল ইন্ডিয়া রেডিও তে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী জানিয়েছেন এসএসসি অর্থাৎ স্টাফ সিলেকশন কমিশন দ্বারা এক লক্ষ শুন্য পদে কর্মী নিয়োগ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন যে, মোট চার লক্ষ শূন্য পদে নিয়োগ করবে কেন্দ্রীয় সরকার অর্থাৎ স্টাফ সিলেকশন কমিশন। রেল মন্ত্রক এবং পোস্ট বিভাগে এই বিপুল পরিমাণে নিয়োগ হবে বলে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে।

প্রথম বার ক্ষমতায় আসার আগে নরেন্দ্র মোদীর সরকার দেশের সাধারণ মানুষকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যে, প্রত্যেকের ব্যাংকে 15 লক্ষ টাকা এবং বছরে প্রায় দু’কোটি চাকরি দেওয়া হবে। কিন্তু দ্বিতীয়বারের জন্য মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পরেও দেশের সাধারণ মানুষকে দেওয়া কথা সম্পূর্ণ হয়নি। বরং দেশের বেকারত্বের সংখ্যা দিন দিন আরো বেড়ে চলেছে। এ বছরে বাজেট পেশ করার সময় কেন্দ্রীয় সরকার হিসেব দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন যে, বিগত দুটি অর্থবর্ষ ধরে 2016-17 এবং 2017-18 মধ্যে প্রায় 3 লক্ষ 80 হাজার চাকরি তৈরি করা হয়েছে দেশের বিভিন্ন সংস্থায়।

কেন্দ্রীয় সরকার দাবি করেছে শুধুমাত্র রেল মন্ত্রকের 99 হাজার জন কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। কেন্দ্রের হিসাব অনুসারে 2017 সালের মার্চ মাসে ভারতীয় রেল কর্মীর সংখ্যা ছিল মোট 13 লক্ষ। সেই সংখ্যা 2019 সালে বেড়ে দাঁড়িয়েছে 14 লক্ষ। সরকারি কাগজপত্র বলছে 2017 থেকে 19 এর মধ্যে মোট 80000 পুলিশ কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ কর বিভাগে যথাক্রমে 29,935 এবং 53,000 হাজার কর্মী নিয়োগ হয়েছে। এবং প্রতিরক্ষা দপ্তরের বিগত দুই অর্থবর্ষ ধরে মোট নিয়োগ হয়েছে 47,347 জন।