দেশনতুন খবরবিশেষরাজ্য

NPR- প্রসঙ্গে নয়া বিবৃতি জারি কেন্দ্রীয় সরকারের, এতে বাবা মায়ের জন্ম বৃত্তান্ত দেওয়া হতে চলেছে আবশ্যিক…

এনপিআর (NPR-National Population Register)সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কেন্দ্রের তরফে এর আগে বহুবার বহু ধরনের নির্দেশিকা এসেছে। এবং এই বিষয়টি নিয়ে বিজেপির জোট শরিক নীতীশ কুমার ও প্রশ্ন তুলেছেন। এবং তিনি এই প্রসঙ্গকে একদিকে রেখে সাধারণ মানুষের কথা তুলে ধরেছেন তার বক্তব্যে। ঠিক এরকম একটা পরিস্থিতিতে এনপিআর নিয়ে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। কেন্দ্রের তরফ থেকে প্রকাশ করা এই তথ্যগুলি 1 লা এপ্রিল থেকে চালু হতে চলেছে বলে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

1. বাবা-মায়ের জন্ম বৃত্তান্ত সংক্রান্ত তথ্য দিতে হবে –
কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে বাবা-মায়ের জন্ম বৃত্তান্ত সংক্রান্ত তথ্য এনপিআর এর ‘ব্যাক এন্ড’-এর জন্য লাগবে। অর্থাৎ 2020 সালের জনগণনা হওয়ার সময় একজন ব্যক্তিকে জানাতে হবে তার বাবা-মায়ের জন্ম তারিখ এবং জন্মস্থান। কেন্দ্রের এমন তথ্য দেওয়ার পর নাগরিকত্ব ঘিরে যে আশঙ্কা দেখা দিচ্ছিল সাধারণ মানুষদের মনে তা আরেকবার ফের উস্কে দিল বলে মনে করছেন অনেকেই।

2. স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সংসদীয় কমিটিও এই ব্যাপারে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন –স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সংসদীয় কমিটির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এর আগে যখন জনগণনা হয়েছিল তখনো বাবা-মা সংক্রান্ত তথ্য নেওয়া হয়েছিল এবং এবারেও তা নেওয়া হবে। এই কমিটির প্রধান অর্থাৎ কংগ্রেসের আনন্দ শর্মার নেতৃত্বে এমনই তথ্য নিয়ে রাজ্যসভায়  পেশ করা হয়। এখানে বলা হয়েছে একজন ব্যক্তির বাবা মায়ের জন্ম বৃত্তান্ত সংক্রান্ত তথ্য এনপিআর-এ কী দেওয়া হবে?

3. কেন্দ্রীয় সরকার 2010 সালে প্রসঙ্গ টেনে এনে বলে, 2010 সালে যে জনগণনা করা হয় তাতেও ব্যক্তির বাবা-মার সংক্রান্ত তথ্য জিজ্ঞাস করা হয়েছে। সেই সময় যে সমস্ত ব্যক্তি যারা জীবিত বা প্রয়াত ছিলেন তাদের সম্পর্কে তথ্য নেওয়া হয়। কিন্তু এবার প্রতিটি ঘরের সাপেক্ষে ‘ব্যাক এন্ড’ এর তথ্য সম্পূর্ণ করার জন্য বাবা মায়ের জন্ম তারিখ এবং জন্মস্থান জানাটা প্রয়োজন। আর 2020 সালের জনগণনাতে এই সংক্রান্ত তথ্য আরও ভালোভাবে জানা যাবে।
অপরদিকে কমিটির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এনপিআর নিয়ে মানুষের মনে প্রবল আতঙ্ক রয়েছে।

তাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টিকে নিয়ে জোর দিয়েছেন যাতে সমস্ত মানুষের এনপিআর নিয়ে সঠিক জ্ঞান থাকে। এর মধ্যেই বিহার বিধানসভা এনপিআর নিয়ে তুমুল শোরগোল শুরু হয়ে গেছে। নীতীশ কুমার বলেন, এনপিআর নিয়ে বহু মানুষের মধ্যে একাধিক প্রশ্ন রয়েছে। আর সেই কারণেই বিতর্কিত দিকগুলি তুলে দেওয়ার জন্য জানিয়েছেন তিনি। আর তারপরেও সরকারের এই ধরনের সিদ্ধান্তের ফলে সাধারণ মানুষের মনে আরও প্রশ্ন জাগছে এবং আতঙ্কের সৃষ্টি হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button