কেন্দ্র সরকার নিতে চলেছে এক কড়া পদক্ষেপ। এবার থেকে জোর করে আধার চাইলে হতে পারে….

আবারো উঠে এলো এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। কেন্দ্র সরকার নিতে চলেছে এক কড়া পদক্ষেপ। কিছুদিন আগেই সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছিলো , এবার থেকে আধার কার্ড কোন কাজে বাধ্যতামূলক হবে না। তবুও কিছু ব্যাংক একাউন্টের জন্য আধার কার্ড চাইছেন । সুপ্রিম কোর্টের বিচারের বিপক্ষে গিয়ে আধার কার্ড দেওয়াতে বাধ্যতা করছে সংস্থাগুলি। তাই এসব এড়ানোর জন্যই এক কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে কেন্দ্র সরকার।গত সোমবার কেন্দ্রীয় সরকার মন্ত্রিসভায় এক বিল পাস করেছে । যেখানে বলা হচ্ছে, সুপ্রিম কোর্টের বিচার অনুযায়ী কিছু নির্দিষ্ট জায়গা ছাড়া আর কোন কাজে আধার কার্ড বাধ্যতামূলক নয়। তবুও কিছু সংস্থা কার্ডের উপর বেশি জোর দিলে তাদের হতে পারে ৩ বছর থেকে ১০ বছর পর্যন্ত জেল এবং ১ কোটি টাকার জরিমানা।

ইতিমধ্যে জানা গিয়েছে , এই নতুন বিল পাস করার প্রধান উদ্দেশ্যটি হল, আধার কার্ড বায়োমেট্রিক প্রক্রিয়ায় হওয়ার জন্য জনগণের প্রচুর ব্যক্তিগত তথ্য সেখানে থাকে এবং আধার কার্ডের দ্বারা তা খুব সহজেই অপব্যবহার হতে পারে, তাই এই কথাকে মাথায় নিয়ে রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।কোনো ব্যক্তির অনুমতি ছাড়াই তার তথ্য ব্যবহার করলে হবে ১০,০০০ টাকা জরিমানা ও ৩ বছরের জেল। শুধু তাই নয়, এবং অনুমতি ছাড়া আইডি বা ছবি ব্যবহার করলে জরিমানা ১,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।এই বছরে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয় মোবাইলের সিম কার্ড কেনার জন্য আধার কার্ড বাধ্যতামূলক নয়। আধার কার্ড শুধুমাত্র প্যান কার্ড এর সাথে যুক্ত করা বাধ্যতামূলক।

নিট বা ইউসিজি এবং সিবিএসসি এই ক্ষেত্রেও আধার কার্ড এবার থেকে আর লাগবে না। এছাড়াও শীর্ষ আদালত বলেছে অনুপ্রবেশকারীরাও এবার থেকে আর আধার কার্ড পাবে না এবং স্কুলে ভর্তি করনের কাজেও আধার কার্ড বাধ্যতামূলক নয়।
আপনাকে ব্যাংকে বা স্কুলে যদি জোর করে আধার কার্ড দিতে বলা হয়, তাহলে আপনি করতে পারেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ। অভিযুক্ত ব্যক্তির ১ কোটি টাকা পর্যন্ত হতে পারে জরিমানা এবং তার সাথে ১০ বছর পর্যন্ত জেল।