শুক্রবার থেকেই রাজ্যে নামতে চলেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী, আর তারপরেই শুরু হবে রুট মার্চ।

পর্যাপ্ত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের উপস্থিতি পরেই রাজ্যের 42 টি লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন সম্পন্ন হবে। রবিবার দিন নির্বাচন কমিশন লোকসভা ভোটে নির্ঘণ্ট ঘোষণা করার পরেই রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক আজিজ আফতাব এ কথা জানিয়েছেন। আর নির্বাচনের দিন ঘোষণার পাঁচ দিনের মধ্যে রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী নামতে চলেছে। গত সোমবার দিন নির্বাচন সূত্রের খবর , আগামী শুক্রবার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বিএসএফ 10 টি কোম্পানি পৌঁছাচ্ছে। তাদের যথাক্রমে মালদাহ , মুর্শিদাবাদ, উত্তর দিনাজপুর,উত্তর 24 পরগনা,দক্ষিণ 24 পরগনা,পূর্ব মেদিনীপুর, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান এবং কলকাতায় মোতায়ন করা হবে।

 

রাজ্যে কত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে সেটা অবশ্য এখনো পরিষ্কার জানা যায়নি।তবে সূত্র অনুসারে জানতে পারা গেছে আগামী 15 মার্চ প্রথম দফায় বাংলায় ঢুকতে চলেছে বাহিনী। তবে কমিশনারের এক কর্তা এদিন বলেন এটি বাহিনীর প্রথম দফা। ধাপে ধাপে আসবে আরো বাহিনী। আর ওই দিন থেকেই শুরু হবে বাংলার বিভিন্ন এলাকায় রুট মার্চ। রাজ্যের নির্বাচনে অধিকারী দপ্তর জানিয়েছে এ রাজ্যে মোট বুথের সংখ্যা আছে 78 হাজার 799 টি। তবে এবারের মোট ভোট গ্রহণ কেন্দ্র হবে 53 হাজার 711 টি।এছাড়া কমিশন সূত্রে খবর পাওয়া গেছে টহলদারি যাতে ঠিকমত হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ কর্তা তার ভিডিও রাখে। কমিশনাররা মনে করছেন এই ভিডিও নেওয়ার সিদ্ধান্ত একাংশ প্রয়োজন কারণ এর আগে নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী কে যথাযথ ভাবে ব্যবহার না করার অভিযোগ উঠেছে।বিরোধীরা আগে থেকেই দাবি করেছিলেন ভয়ের পরিবেশ রুখতে দ্রুত কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে এলাকায় টহলদারি শুরু করতে হবে।রাজ্য পুলিশের কর্তারা যাতে যথাযথভাবে কেন্দ্রীয় বাহিনীদের উপযুক্ত ব্যবহার করেন তা নিশ্চিত করতে আর্জি জানানো হয়েছে ইতিমধ্যে।

 

নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে যে ভোটার স্লিপ ইস্যু করা হয় এবার তা দেখিয়ে শুধু ভোট দেওয়া যাবে না। ভোটার সচিত্র পরিচয় পত্র না থাকলে নির্দিষ্ট অন্য 11 ধরনের সচিত্র পরিচয় পত্রের মধ্যে 1 টি দেখাতে হবে। আর এবার রাজ্যে সব বুথে ভিপিপ্যাট ভোট মেশিন ব্যবহার করা হবে। এছাড়া ভোট সংক্রান্ত অন্য কোন বিষয় ও আচরণবিধি লংঘন নিয়ে সাধারণ মানুষ যাতে সহজে অভিযোগ জানাতে পারে এর জন্য সি-ভিজিল নামে একটি অ্যাপ এবার কমিশনার চালু করেছে। এই অ্যাপস এর মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও লোড করা যাবে। এমন কী কেউ চাইলে তার পরিচয় গোপন রেখে অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন এই অ্যাপসের মাধ্যমে। এছাড়াও 1950 নম্বরে ফোন করেও অভিযোগ জানানো যাবে।

arghya maji

Argya, is an active political thinker likes to write on political topics. Graduated on Bengali. Email: arghyamaji420@gmail.com

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close