জনগণের পয়সায় খাওয়া বন্ধ হল সংসদের, ক্যান্টিনের কোনও খাবারেই আর ভর্তুকি দেবে না কেন্দ্র

আর মাত্র ৬৫ টাকায় সংসদে মিলবে না হায়দরাবাদি বিরিয়ানি। তবে শুধু বিরিয়ানি নয়,  সংসদের ক্যান্টিনের (Parliament Canteen) কোনও খাবারেই আর ভর্তুকি দেবে না কেন্দ্র। বাজেট অধিবেশন শুরুর আগেই এ কথা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা।

১৯৪৭ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার  পরবর্তী সময় থেকেই ভারতের সংসদের ক্যান্টিনে সস্তায় খাবার পাওয়া যেত। এর জন্য বিপুল অঙ্কের টাকা ভর্তুকি দিত কেন্দ্র।  সাংসদ ও সংসদের কর্মচারীরা মোটা টাকার বেতন পান। তারপরেও সাংসদদের খাবারে এহেন ভর্তুকি (Subsidy) দেওয়ায় এর আগেও প্রচুর সমালোচনার মুখে পড়েছে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন সরকার।

এবার সেই ভরতুকি তুলে নিচ্ছে মোদি সরকার। যার ফলে বার্ষিক সরকারের আট কোটি টাকা বাঁচবে জানা যাচ্ছে৷  লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা জানিয়েছেন, “এবার থেকে সংসদের ক্যান্টিনের খাবারের দামে কোনও ভর্তুকি মিলবে না। দামী হবে সংসদের ক্যান্টিনের খাবার। সংসদের ক্যান্টিন এবার থেকে চালাবে আইটিডিসি।

জানুয়ারি মাসের  শেষেই বসছে সংসদের বাজেট অধিবেশন। বাজেট পেশের আগে ৩০ জানুয়ারি সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর মাঝেই  একাধিক নিয়মবিধি ঘোষণা করলেন লোকসভার স্পিকার।  অধিবেশেনের নির্দিষ্ট সময়বিধি থেকে কোভিড পরীক্ষা সংক্রান্ত নিয়মকানুনও সবই রয়েছে এর মধ্যে৷

Republic Day উপলক্ষ্যে বিশেষ সেল আনলো Reliance Digital, মিলবে ৮০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়

লোকসভা ও রাজ্যসভার কাজের সময় কিছুটা কাটছাঁট করা হচ্ছে। রাজ্যসভা  সকাল ৯টায় বসে চলবে দুপুর ২টো পর্যন্ত। লোকসভা  দ্বিতীয়ার্ধে, বিকেল চারটে থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে । প্রশ্নোত্তর পর্ব চলবে সময়সূচি মেনে, অর্থাৎ ১ ঘণ্টা। বাজেট অধিবেশন শুরুর আগে সাংসদ ও তাঁদের পরিবারের কোভিড পরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক বলেও জানিয়েছেন স্পিকার ওম বিড়লা। জানুয়ারি মাসের ২৭ এবং ২৮ তারিখে সংসদ চত্বরে আরটিপিসিআর পদ্ধতিতে সাংসদ ও তাঁর পরিবারের করোনা পরীক্ষা করা হবে।