বিরাটকে যে কারণে বিয়ে করতে রাজি হয়েছিলেন অনুষ্কা, করলেন সেই রহস্য ফাঁস

প্রথম থেকে বলিউডের নায়িকা এবং ক্রিকেট প্লেয়ার হওয়ার সুবাদে বিরাট কোহলি এবং অনুষ্কা শর্মা বেশিরভাগ সময়ই লাইমলাইটে থাকেন। সম্প্রতি তাদের জীবনে এসেছে ছোট্ট একটি সন্তান। নাম ভামিকা। এই জুটি তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের ঘটনা গুলোকে নেট মিডিয়ার সামনে খোলাখুলি আলোচনা করেন না। সন্তান হওয়ার এক মাস পর তাঁরা মিডিয়ার কাছে নিজের সন্তানের নাম জানান।

 

এই জুটি তাদের বিয়ের বিষয়টিকেও গোপন রেখেছিল। জানেন কি কেন অনুষ্কা বিরাট কোহলি কে বিয়ে করতে রাজি হয়েছিল? ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর বিয়ে করেছিলেন বিরাট ও অনুষ্কা। যার আসর বসেছিল ইতালিতে। তাদের বিয়ের আসরে ছিল বিলাসিতার ছোঁওয়া। ঘনিষ্ঠ বন্ধু বান্ধব এবং আত্মীয়-স্বজনদের নিয়েই তাঁরা তাঁদের বিয়ের আসর সমাপ্ত করেছিলেন। বিয়ের চার মাস আগে থেকে তাঁরা বিয়ের জন্য পরিকল্পনা করতে থাকেন। কিন্তু প্রেম থেকে বিয়ে।পুরো ব্যাপারটাই তাঁরা চুপিচুপি সেরে ফেলেন।

অনুষ্কা এবং কোহলির যখন বিবাহ হয় তখন অনুষ্কার বয়স ছিল মাত্র ২৯ বছর। ২৯ বছর বয়স্কা নায়িকাদের ক্ষেত্রে কম বলেই বিবেচিত হয়। এ প্রসঙ্গে অনুষ্কা বলেছিলেন যে সত্যিই আমার যখন বিয়ে হয় তখন আমার বয়স ছিল ২৯ বছর। দর্শকরা নায়ক নায়িকাদের টেলিপর্দাতেই দেখতে পছন্দ করেন। তাই তাঁরা মে মা হতে পারেন। তাঁদের নিজেদের মে ব্যক্তিগত জীবন থাকতে পারে না এরকম মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসা উচিত। আমি বিয়ে করেছি আমার ভালোবাসার মানুষের সাথে। ভালবাসার কোনো বয়স হয় না। বিবাহিত মহিলাদের যোগ্য সম্মান দেওয়া উচিত।

সম্প্রতি তাঁদের জীবনে এসেছে একটি ছোট্ট কন্যা সন্তান। কন্যা সন্তান হবার খবর বিরাট কোহলি তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে প্রদান করেছেন। মেয়ে হবার খবর জানাতে গিয়ে কোহলি লিখেছিলেন, ‘আমি অত্যন্ত উত্তেজিত এই কথা জানাতে যে এই বিকেলে আমাদের একটি কন্যা সন্তান হয়েছে। সবার ভালোবাসা, প্রার্থনা ও শুভ কামনার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

অনুষ্কা ও আমাদের সন্তান দুজনেই ভালো আছে। আমাদের জীবনের এক নতুন অধ্যায় এবার শুরু হল। আশা করি আমাদের জীবনের এই সুন্দর ব্যক্তিগত মুহূর্তের প্রাইভেসি আমরা রক্ষা করতে পারব। সবাইকে অনেক ভালোবাসা।’