শীঘ্রই নামতে চলেছে তাপমাত্রার পারদ, চলতি মরসুমে শীতলতম শীত দেখতে চলেছে গোটা দেশ

দিওয়ালির আমেজ শেষ হতে না হতেই কলকাতা এবং সংলগ্ন এলাকায় শীতের আমেজ পেতে শুরু করেছে নাগরিকেরা ।ডিসেম্বর এবং জানুয়ারি মাস সাধারণত সব থেকে বেশি ঠান্ডা অনুভূত হয় । তবে এইবার আবহাওয়া বিদদের দাবি অন্যান্যবারের থেকেই এইবারে বেশ জাঁকিয়ে পড়তে চলেছে ঠান্ডা । অন্যান্য বারের তুলনায় এইবারে নভেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকেই তা বেশ অনুভব করতে পারছে বঙ্গবাসীরা। এই বছরের শুরু থেকেই আবহাওয়ার বেশকিছু অন্যতম পরিবর্তন লক্ষ্য করেছে দেশবাসী।

ইতিমধ্যে উত্তরাখণ্ড, মহারাষ্ট্র, এবং কেরালায় অত্যাধিক বৃষ্টিপাত এর জন্য বন্যা সৃষ্টি হয়েছে । তাই বছরের শুরু থেকেই গ্রীষ্ম এবং বর্ষাতে আবহাওয়া যেরকম চরমভাবাপন্ন পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে সেই নীতি অনুসরণ করে এইবার শীত ও অত্যন্ত বেশি পড়বে। বেশ কিছুদিন ধরেই সকালে এবং রাতে দিকে তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বেশ কিছুটা নিচের দিকে। ভোরের দিক করে ভালোই ঠান্ডা অনুভব করা যাচ্ছে। কলকাতায় আজকের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা হলো ৩২ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা হলো ২৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

আবহাওয়া যে রকম পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে তাতে কয়েক দিনের মধ্যেই লেপ কম্বল বের করবার সময় হয়ে আসছে বলে আবহাওয়াবিদদের ধারণা। আবহাওয়াবিদদের মতে এই বছর একটু দেরিতে হলেও বর্ষা বিদায় নিয়েছে এবং পরপর হাতে থাকা নিম্নচাপের জেরে বৃষ্টি হয়েছে বেশি। বেশি বৃষ্টির ফলে এবারের শীত বেশি পড়বে অন্যবারের তুলনায় তা স্বাভাবিকভাবেই মনে করা হচ্ছে। সম্প্রতি বর্ষা-বিদায় পর ধীরে ধীরে উত্তরের হাওয়া প্রবেশ করছে। ফলে গত বছরের তুলনায় এ বছর শীত একটু বেশি পড়বে এমন টাই ধারনা করা হচ্ছে।

তবে আজ থেকে আকাশ মেঘলা হয়ে আছে। আগামী দু-তিন দিনের মধ্যে হালকা থেকে মাঝারি বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে । রাতের দিকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে । আগামীকাল কলকাতা সংবাদ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস। ফলে আসন্ন এই বৃষ্টির হাত ধরেই বঙ্গে জাঁকিয়ে পড়তে চলেছে শীত।