প্রযুক্তির দিক দিয়ে ভারতীয় রেলের নতুন পদক্ষেপ। এবার থেকে ইঞ্জিন ছাড়াই চলবে বিদ্যুৎ গতির ট্রেন।

এবার ভারতে ইঞ্জিন ছাড়াই চলবে বিদ্যুৎ গতির ট্রেন। প্রযুক্তির দিক দিয়ে ভারতীয় রেলের নতুন পদক্ষেপ। এই আধুনিক ট্রেন প্রথম 29 তারিখে ট্রায়ালে আনা হবে তারপর কিছুদিন ট্রায়েল হওয়ার পর এই ট্রেনকে নির্দিষ্ট রুটে চালনা করা হবে। রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ট্রেনটি তৈরিতে মোট খরচা হয়েছে 100 কোটি টাকারও অধিক যদিও ওই টাকাতে দুটো সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস তৈরি হয়ে যাওয়া সম্ভব । কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে ট্রায়েল পুরোপুরিভাবে সক্ষম হলে ট্রেনটিকে রির্সাচ ডিজাইন এন্ড স্ট্যান্ডার অরগানাইজ কমিউনিটির হাতে ট্রেনটিকে কে তুলে দেবে।

আপনি হয়তো জানলে অবাক হবেন এই বিশ্বমানিক ট্রেনটির গতিবেগ হল ঘন্টায় 160 কিলোমিটার ,160 কিলোমিটার  গতিবেগ আপনার কম মনে হলেও ভারতের জন্য এটি অনেক । এছাড়াও এটি পুরোপুরি স্টেনলেস স্টিল দিয়ে তৈরি এবং দুপাশে লম্বা জানালা। তার সাথে সাথে প্রথম থেকে শেষ অব্দি যাতায়াতের রাস্তা এবং তার সাথে সাথে ট্রেনটিতে প্রতি বগিতে লাগানো থাকবে সিসিটিভি ক্যামেরা। এছাড়াও আরও অনেক সুবিধা রয়েছে ট্রেনটিতে তার মধ্যে একটি হলো অটোমেটিক ডোর যেগুলো নিজেই খুলবে নিজেই বন্ধ হবে এছাড়াও লাগানো আছে অটোমেটিক সিঁড়ি । অটোমেটিক ট্রেন প্লাটফর্মে গেলে নিজে নিজেই বেরিয়ে যাবে সিড়ি  এবং প্ল্যাটফর্ম থেকে ট্রেন বেরোলে আবার নিজে ঢুকে যাবে।

আনুমানিক ট্রেনটিতে 134 টি সিটের ব্যবস্থা করা হয়েছে অর্থাৎ এক সময়ে 134 জন যাত্রী ভালোভাবে এই ট্রেনটিতে যাত্রা করতে পারবেন। তার সাথে সাথে পুরো ট্রেনটি হল Ac এবং টেন টির মধ্যে ওয়াইফাই ও জিপিএস এর ব্যবস্থা থাকবে ও ব্যাগ রাখারও নির্দিষ্ট কম্পার্টমেন্ট তৈরি করা হয়েছে।কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে লাগানো হয়েছে ট্রাকশান মটর । লাগানো হয়েছে খুব আধুনিক প্রযুক্তির ব্রেক। সব শেষে বলাইবাহুল্য হবে ট্রেনটি যেমন আরামদায়ক তার তেমনি অনেক সুবিধাজনকও।

Related Articles

Close