বাড়তে চলেছে আম্বানি‌র চিন্তা, Reliance Jio কে টক্কর দিতে TATA করতে চলেছে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় এন্ট্রি

এই মুহুর্তে ইন্টারনেট কথাটার সাথে আমরা এমনি ওতপ্রোত ভাবে জড়িত যেটি ছাড়া এই মুহুর্তে আমরা অচল। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে ইন্টারনেট হল আমাদের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। যত দিন যাচ্ছে ইন্টারনেট এর ব্যবহার ততই বেড়ে চলেছে। এই মুহুর্তে ইন্ডিয়াকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ইন্টারনেট কন্জিউমার দেশ হিসাবে গন্য করা হয়েছে। প্রতিটা ঘরে ঘরে এখন ইন্টারনেটের চাহিদা ভীষণভাবে বেড়ে গেছে। এই মুহুর্তে ইন্টারনেট দুনিয়া ও টেলিকম দুনিয়ার সবথেকে টপে আছে রিলায়েন্স জিও।

বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে রিয়ালেন্স জিও কোম্পানি নিজেদের ফ্রি পরিষেবা দেবার ফলে তাদের একটা বিরাট শক্তিশালী ইউজার বেস তৈরী হয়ে গেছে। তবে এবারে রিলায়েন্স জিওকে টেক্কা দিতে বাজারে আসতে চলেছে ইন্ডিয়ার আর এক নাম করা কোম্পানি টাটা গ্রুপ তারাও এবারে বাজারে আনতে চলেছে ইন্টারনেট সহ টেলিকম সার্ভিস। এই মুহুর্তে দাঁড়িয়ে ইন্ডিয়ার সবথেকে স্বনামধন্য দুটো কোম্পানি হল টাটা গ্রুপ ও মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স জিও কোম্পানি। এই খবর আসার পর স্বাভাবিকভাবেই মুকেশ আম্বানির কপালে ভাঁজ পড়েছে।

TATA Jio

টাটা গ্রুপ অনেক আগেই ঘোষনা করেছিলেন তাঁরা ইন্ডিয়ায় লঞ্চ করতে চলেছেন এবারে 5G এর পরিষেবা এবং তারা অনেক আগেই টেলিকম কোম্পানি এয়ারটেল ইন্ডিয়ার সাথে নিজেদের ব্যবসার হাত মিলিয়েছেন। এবারে তারা নিজেরাই জনসাধারণের কাছে ঘোষণা করলেন তাদের আরও একটি বড় খবর। সেটি হল, বাজারে তারা নিয়ে আসছে নিজেদের ইন্টারনেট পরিষেবা। টাটা গ্রুপ তৈরী করছে নিজেদের ব্রডব্যান্ড পরিষেবা যা মুকেশ আম্বানির জিওফাইবারের থেকেও শক্তিশালী।

সেখানে পাওয়া যাবে হাই স্পিড ইন্টারনেট পরিষেবা। এই বিষয়ে রিলায়েন্স জিও কোম্পানির সাথে টাটা গ্রুপের একটা জোরালো প্রতিদ্বন্দ্বিতা সৃষ্টি হয়েছে। টাটা গ্রুপ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আগামী দুই থেকে তিন বছরের মধ্যেই তারা মোটামুটি 5G পরিষেবা ও তাদের নিজস্ব ব্রডব্যান্ড সার্ভিস চালু করে দেবে। তারা খুব শীঘ্রই বাজারে নিয়ে আসতে চলেছে এই পরিষেবা যা রিলায়েন্স জিও ও জিওফাইবারের থেকেও বেশি ইন্টারনেট স্পিড দিতে পারবে।

এই মুহুর্তে ইন্ডিয়াতে যে হারে ইন্টারনেটের চাহিদা বেড়েই চলেছে সেই বুঝে গোটা টাটা গ্রুপ ইন্ডিয়ার মানুষদের সুযোগ সুবিধা পায় সেই কারণে খুব শীঘ্রই নিয়ে আসতে চলেছে ব্রডব্যান্ড পরিষেবা। যা জিও ফাইবারের চার গুণ বেশি স্পিড দেবে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে প্রি-বুকিং। খুব তাড়াতাড়ি ২০২২ সালের মধ্যেই আম জনতা এই ব্রডব্যান্ড সার্ভিস পাবেন বলেই জানিয়েছে টাটা গ্রুপ।