সিদ্ধান্তে ফের বদল করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচাতে জনসাধারণের জন্য আপাতত বন্ধ তারাপীঠ…

দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা। রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতে করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা 200 জন। আক্রান্তের সংখ্যা 200 জন হলেও খুশির খবর হলো মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েনি। এখনো পর্যন্ত ভারতে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে মৃত্যু হয়েছে 4 জনের। তবে এই মরণ ভাইরাস যেভাবে সব জায়গায় থাবা বসাচ্ছে তাতে সংক্রমনের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। গতকালের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর বৃহস্পতিবার মন্দির খুলে রাখার সিদ্ধান্ত পাল্টালো তারাপীঠ মন্দির কমিটি।

গতকাল সিউড়িতে বীরভূম জেলার প্রশাসনের সঙ্গে সেখানকার সমস্ত মন্দির ও মসজিদ কমিটির সদস্যদের নিয়ে এক বৈঠক আয়োজন করা হয়। এবং এই বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, এই মুহূর্তে তারাপীঠ বা অন্যান্য মন্দির এবং মসজিদগুলি সাধারণ মানুষের জন্য খোলা রাখা হোক। কিন্তু করোনাভাইরাস কে ঠেকাতে সমস্ত সচেতনতামূলক পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার তারাপীঠ মন্দির কমিটির সদস্যরা এক বৈঠক করেন।

এবং এই বৈঠকে আবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে 31 মার্চ পর্যন্ত জনসাধারণের জন্য বন্ধ থাকবে মন্দির। কিন্তু প্রতিনিয়ত রীতি মেনে পূজা হবে মায়ের মন্দিরে। 31 শে মার্চের পর পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে তারাপীঠের মন্দির জনসাধারণের জন্য খোলা থাকবে না বন্ধ থাকবে। তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় এ বিষয়ে জানান, ” স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নির্দেশ রয়েছে যে জনসমাগম যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলা। কিন্তু আমাদের তারাপীঠের মন্দিরে বিভিন্ন দেশ থেকে মানুষজন আসেন।

তাই মন্দির বন্ধ রাখা ছাড়া আমাদের হাতে আর কোনো উপায় ছিল না জনসমাগম এড়িয়ে চলার। আর তাই বৃহস্পতিবার আমাদের এই বৈঠকে ঠিক হয় 31 মার্চ পর্যন্ত মন্দির বন্ধ থাকবে। 31 মার্চের মধ্যে যদি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায় তাহলে পরের দিন থেকেই মানুষের জন্য মন্দির খোলা থাকবে। কিন্তু যদি পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয় তাহলে আবার মন্দির বন্ধ হয়ে যেতে পারে। ”