নোট বন্দির সময় আসা ব্যবসার দুর্দান্ত আইডিয়াকে কাজে লাগিয়ে আজ তৈরি করেছেন ৭০০ কোটি টাকার কোম্পানি

মোবাইল ওয়ালেট এবং অন্যান্য ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম চালু হওয়ার পর থেকে আমাদের কাছে খুচরো টাকা আর থাকেই না। মানুষ নগদ টাকা বহন করতে একেবারেই ভুলে গেছে। মোবাইল রিচার্জ হোক অথবা বিদ্যুতের বিল পেমেন্ট, কেনাকাটা হোক অথবা নার্সিংহোমের বিল, সবকিছুই আমরা অনলাইনে লেনদেন করি। এমন এটি অনলাইন পেমেন্ট প্লাটফর্ম হলো ফোন পে।

আজ phonepe নামক অ্যাপটির প্রতিষ্ঠাতা সমীর নিগমের সাফল্যের গল্প বলতে চলেছি আমরা। ২০০৫ সালে তিনি ফোন পে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। বর্তমানে এই কোম্পানির সিইও হিসেবে কাজ করছেন তিনি। সমীর flipkart এ ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবেও কাজ করেছেন একসময়। ২০০৯ সালে নিজের প্রথম কোম্পানি mime ৩৬০ শুরু করেন তিনি। এই কোম্পানির কাজ ছিল মালিকদের সঙ্গে কনটেন্ট প্রদানকারীদের সংযুক্ত করিয়ে দেওয়া।

এই কোম্পানি ছিল একটি অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়া ডিস্ট্রিবিউশন প্লাটফর্ম কোম্পানি। ২০০৯ সালে সমীর এই কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন যা পরবর্তীকালে ফ্লিপকার্ট কিনে নেয়। এরপর ২০১৫ সালের মোবাইল ওয়ালেট অ্যাপ ফোন পে তৈরি করেন সমীর। বর্তমানে এই সংস্থাটি এগারোটির বেশি ভারতীয় ভাষায় ব্যবহারকারীদের জন্য উপলব্ধ।

সমীর নিগমের বর্তমান সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ১৭.৭ কোটি টাকার বেশি। ২০১৬ সালে যখন নোট বন্দি হয়েছিল তখন এই অ্যাপ প্রচুর মানুষের উপকার করেছিল। সেই সময় মানুষের কাছে বিকল্প ভীষণ কম ছিল তখন এটি এম অথবা ব্যাংকে দিন ভর দাঁড়ানোর থেকে মানুষ এই প্রকল্প বেছে নেওয়াই শ্রেয় মনে করেছিলেন। নোট বন্দি ফোন পে অ্যাপকে একটি অন্য সফলতার শিখরে পৌঁছে দিতে সহায়তা করে।