সুশান্তকে চোখের জলে বিদায় বলিউডের, শেষযাত্রায় তুমুল বৃষ্টিতে মুম্বাইয়ের ভিলে পার্লেতে শুরু শেষকৃত্য

কথায় আছে মুম্বাই নাকি মায়ানগরি শহর যেখানে আজ আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নেমেছে মুম্বাইয়ে, যেন মনে হচ্ছে মুম্বাই তার নিজের এক প্রিয় সন্তানের মৃত্যুকে কোন মতে মেনে নিতে পারছেন না। আর প্রকৃতি এই ভাবেই তার নিজের মনের কথা ব্যাখ্যা করছে বৃষ্টিধারায়।আজ দুপুর সাড়ে তিনটে নাগাদ কুপার হাসপাতাল থেকে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের শবদেহ শেষ কৃতকার্যের জন্য নিয়ে যাওয়া হল ভিলে পার্লের পবন হংস শ্মশানে। আজ সোমবার দিন সকাল বেলাতেই অভিনেতার পরিবারের সদস্যরা পাটনা থেকে এসে পৌঁছেছেন মুম্বাইয়ে।

অন্তিম বিদায় যেন চারদিকে ছেয়ে গেছে বৃষ্টি, বৃষ্টি থাকা সত্ত্বেও এই দিন সুশান্তের অন্তিম দর্শনের জন্য পৌঁছালেন তার এক সময় চর্চিত বান্ধবী কৃতি শ্যানন তিনি রাবতার কো- স্টার হিসাবেও কাজ করেছিলেন সুশান্তের সাথে।তার পাশাপাশি এই দিন সুশান্তের অন্তিম বিদায় লক্ষ্য করা গেল শ্রদ্ধা কাপুর, বরুন শর্মা, দিল বেচারার পরিচালক মুকেশ ছাবড়া ও কাই পো চে এর পরিচালক অভিষেক কাপুর কেও। তার পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন রণবীর শোরে, রণদীপ হুড্ডা, বিবেক ওবেরয়। ছিলেন সুশান্তের বান্ধবী রীহা চক্রবর্তীও।

তার পাশাপাশি আরো কয়েকজন ইয়ং বিগেট তারকারাও ছিলেন এই তালিকা যাদের শ্মশানে ঢুকতে দেওয়া হয়নি পুলিশের তরফ থেকে। যেহেতু এই মুহূর্তে করোনা মারামারির জেরে মাত্র কুড়ি জনকে নিয়ে শেষ কৃতকার্য সম্পন্ন করার অনুমতি রয়েছে। মুম্বইয়ের বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছিল অভিনেতা সুশান্ত সিং এর ঝুলন্ত দেহ। পরে ময়নাতদন্তের যে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে সেখানে অভিনেতার মৃত্যুর কারণ আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হয়েছে। যদিও সুশান্তের এরকমভাবে এক আত্মহত্যা করার খবরের জেরে হতবাক গোটা বি-টাউন, তাছাড়া সুশান্ত ফ্ল্যাট থেকেও মেলেনি কোনো সুসাইড নোট।

 

তবে যে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে সুশান্ত সেখানে মৃত্যুর কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ঝুলে পড়ার কারনে দম বন্ধ হয়ে মৃত্যু, জানিয়েছে পুলিশ। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে গত ছয় মাস ধরে নাকি তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। এছাড়া তার ফ্ল্যাট থেকেও বেশ কিছু মেডিকেল রিপোর্ট এবং ঔষধ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাছাড়া সুশান্তের করোনার পরীক্ষাও করা হয়, যদিও সেটি নেগেটিভ এসেছে।

Related Articles

Close