শুধু পাকিস্তানই না, ভারতের পাল্টা হামলার ভয়ে কাঁপছে এরাও

প্রথমেই আপনাদের জানিয়ে দিই,গতকাল পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলাটিতে ভারতের ৪৪ জন সৈনিক শহীদ হয়েছেন , এছাড়াও নিহতের সংখ্যা কম ছিল না। যদিও এই মামলাটির সম্বন্ধে অফিসিয়ালি কোনো ডেটা পাওয়া যায়নি। এই হামলাটির পর সমগ্র দেশ শোকের মধ্যে রয়েছে। কেবলমাত্র ভারতেই নয় বিদেশেও এই ঘটনার নিন্দা করা হচ্ছে। সন্ত্রাসবাদের আতুরঘর হলো পাকিস্তান, তারা এই মামলাটির দায়ভার পুরোপুরি নিজের ওপর থেকে হাঁটিয়ে দিতে চেয়েছে। অপরদিকে ভারতের প্রতিবেশী দেশ চীন ,এই জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানের সমর্থক হয়ে কথা বলছে। যদিও এই দুটি দেশ ভারতের বিপক্ষে গিয়ে কি করল না করল, তাতে ভারতের কোন যায় আসে না।

 

এই হামলাটির পর আমাদের ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বীর সৈনিকের এই বলিদান গুলির বদলা নেওয়ার জন্য তিনি সৈনিকদের উৎসাহিত করলেন এবং সম্পূর্ণ স্বাধীনতা ও দিলেন। সেই সঙ্গে তিনি এও বলেছেন, ” পাকিস্তানের আতংবাদিদের এই ঘৃণ্য কাজের জন্য, আমাদের ভারতের জওয়ানরা তাদের অবশ্যই উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে”। তিনি পাকিস্তানকে একটি কড়া হুমকির বার্তা পাঠিয়েছেন।

মোদিজীর এই করা হুমকিতে পাকিস্তান প্রেমী ভারতবাসিরা আগের থেকেই সতর্ক হয়ে গেলেন। তাদের মাথায় অবশ্যই এই কথাটা ঢুকে গেছে যে, উরি হামলাটির জন্য ভারত সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছিল এবং এই পুলওয়ামা হামলাটির জন্য ভারত এবার আরো বেশি কিছু করতে পারে।

বিগত কিছু বছর ধরে যারা মোদীজী এবং ভারতীয় সেনাদের বিরুদ্ধে বলতেন কথা তারাই আজ ভারতকে মানবিক হতে বলছেন। তাদের এখন একটি বক্তব্য যে , যে ৪৪ জন জওয়ান চলে গেছেন তারা আর কোনদিনও ফিরে আসবে না , তাই বদলা নিয়ে কি হবে বরং তাদের সঙ্গে কথা বলে যদি এইসব সমস্যাগুলোর সমাধান খুঁজে বের করা যায়।

প্ল্যাকার্ড গার্ল গুরমেহার কৌর এর সব ঘোষিত মানবতাবাদি র সংস্থা “দ্য ভয়েস অফ রাম” এদেরই বক্তব্য ভারতকে এখন যুদ্ধে না গিয়ে কথা বার্তার মাধ্যমে সব ঠিক করে নেওয়া উচিত। এছাড়াও এদের সঙ্গে রয়েছেন কংগ্রেস নেতা সিধু এবং কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এছাড়াও বেশ কিছু ব্যক্তি।

কেবলমাত্র পাকিস্থানই , ভারতের সকল বিরোধী দেশ গুলি ও আজ ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে ভয় পায়। পাকিস্তান প্রেমীরা চাইনা যে, পাকিস্তানের কোনরূপ ক্ষতি হোক তাই তারা মানবতাবাদের আড়ালে লুকিয়ে থাকে। আমাদের ভারতীয় সেনাবাহিনীরা জানেন তার শত্রুর সঙ্গে কিভাবে বদলা নিতে হয়, তারা তা ভালো করেই জানে,আর এতে কোন সন্দেহ নেই। এবার আর সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নয় এবার আরও বড় কিছু করার যোজনা বানাচ্ছে ভারত।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close