সুপ্রিম কোর্টের রায়- দুই পার্টনারে সম্মতিতে হওয়া শারীরিক সম্পর্ককে কখনোই রেপ বলে গণ্য করা হবে না।

লিভিং রিলেশনকে ভারতীয়রা বাঁকা চোখে দেখে।অনেকদিন ধরে স্ত্রী পুরুষ একসাথে থাকলে এবং পুরুষ সেই রিলেশন ভাঙলে স্ত্রী রেপের মামলা করতো। তার পরিপ্রেক্ষিতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট জানাল রায়। লিভ ইন সম্পর্কে থাকার সময় যৌথ সম্মতিতে সেক্স করলে তার উপর রেপ এর কোনরকম মামলা করা যাবে না। এমনটাই আদেশ সুপ্রিমকোর্টের। এছাড়াও আদালতের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে পুরুষ ও স্ত্রী অনেকদিন ধরে একসাথে লিভ ইন এ থাকলেও পরবর্তী সময়ে পুরুষ যদি স্ত্রীকে বিয়ে নাও করে তাহলে সেটিকে রেপ বলে বিবেচিত করা হবে না , অর্থাৎ লিভিং এর সময় স্ত্রী র সম্মতি ছিল তাই এই শুনানি।

উচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট পুরুষদের কথা ভেবেই হয়তো এই সিদ্ধান্তে পরিণত হয়েছে। প্রতিবছর এ ঘটনার জন্য হাজারেরও বেশি মামলা আদালতে উঠে থাকে। শুধু তাই নয় এর জন্য অনেক কারাদণ্ডে দণ্ডিত হতে হয়েছে, নষ্ট হয়েছে অনেকের জীবন। মহারাষ্ট্রের এক নার্স ডাক্তারের বিরুদ্ধে ঠিক এমনটাই অভিযোগ জানিয়ে কোটে মামলা করেছিলেন এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ” যৌথভাবে হওয়া শারীরিক সম্পর্ক ও রেপ এর মধ্যে অনেকটাই তফাৎ রয়েছে। শুধু তাই নয়, কোর্টকে এর জন্য অনেকটা ভালো ভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখতে হবে যে , অভিযুক্ত ব্যক্তির কোনরকম গোপন উদ্দেশ্য আছে কিনা, নিজের লালসার চরিতার্থ কযার জন্য মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল কি না!

বিচারপতি একে শিকরি ও এস আব্দুল নাজিরের ডিভিশন বেঞ্চ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, কোনো মহিলা যদি তার ইচ্ছা অনুসারে ওই পুরুষটির সাথে লিভ ইন সম্পর্কে জর্জরিত থাকে তাহলে পরবর্তী কালে সেটিকে রেপ বলে গণ্য করা হবে না”।