করোনা মহামারীর জেরে “স্কুল ফি” ১৫% কমানোর রায় সুপ্রিম কোর্টের

দেশে হু হু করে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা৷ করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আতঙ্ক জাগাচ্ছে মানুষকে৷ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে ১ দিনে আক্রান্ত ৩ লাখ ৬৮ হাজার ১৪৭ জন৷ মৃত  ৩৪১৭ জন। সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে অনেক রাজ্যে ফের লকডাউন চালু হয়েছে৷ বন্ধ করা হয়েছে স্কুল কলেজ সহ সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।  বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে৷ বেশ কিছু জায়গায় অনলাইন ক্লাস শুরু হয়েছে৷


এদিকে দেখা দিয়েছে অন্য সমস্যা৷ অনলাইন ক্লাস হলেও অভিভাবকদের এই কঠিন সময়ে দিতে হচ্ছে পুরো বেতন৷ এই বিষয় এবার গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট৷

সোমবার রাজস্থানের প্রায় ৩৬ হাজার বেসরকারি স্কুলকে ১৫% কম করার নির্দেশ দিয়েছে৷  করোনা আবহে কোনো ছাত্রছাত্রী  বেতন দিতে না পারলেও তাকে অনলাইন ক্লাস করতে দিতে হবে৷

উস্কানিমূলক মন্তব্যের জেরে সাসপেন্ড কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) টুইটার অ্যাকাউন্ট

রেগুলেশন অব ফি আইন ২০১৬ এবং সরকার বাধ্যতামূলক পদ্ধতি দ্বারা স্কুল ফি আইনের অধীনস্থ বিধিগুলিকে চ্যালেঞ্জ প্রত্যাখান  করে রাজস্থান হাইকোর্ট রায় বহাল রেখেছে। বিচারপতিদের দেওয়া ১২৮ পাতার রায়ে পরিস্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে,  ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য ছটি সমান কিস্তিতে বেতন দেওয়া যাবে৷

করোনা আবহে লকডাউনের এই কঠিন সময় মানুষের আর্থিক অবস্থা শোচনীয়৷ বহু মানুষ এর কাজ চলে গেছে৷ এই সময় স্কুলের পুরো ফি দিয়ে সন্তানের পড়াশুনা চালানো অনেকের ক্ষেত্রেই অসম্ভব৷ ২০১৬ এর আইন অনুযায়ী সমস্ত স্কুল বেতন নিতে পারে৷ কিন্তু ১৫%   ছাড় দিতে হবে বেতনের ক্ষেত্রে৷ সেইসাথে এটাও বলা হয়েছে,  স্কুলগুলি চাইলে আরও অতিরিক্ত ছাড় দিতে পারে৷