নতুন খবরবিশেষব্যবসা

আদালত অবমাননা মামলায় দোষী সাব্যস্ত অনিল আম্বানি, হতে পারে জেল পর্যন্ত…

রিলায়েন্স কমিউনিকেশন এর চেয়ারম্যান অনিল আম্বানি কে দোষী সাব্যস্ত করল সুপ্রিম কোর্ট। আদালত অবমাননার মামলায় সুপ্রিম কোর্ট তাকে দোষী সাব্যস্ত করল। এরিকসন ইন্ডিয়া নামে একটি সংস্থার পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলা করা হয়। তাদের অভিযোগ যে তারা রিলায়েন্স কমিউনিকেশন এর কাছে 550 কোটি টাকা পায়। কিন্তু সেই টাকা অনিল আম্বানির সংস্থা দিচ্ছে না।এরপর সুপ্রিম কোট বলে সেই বকেয়া টাকা রিলায়েন্স কোম্পানিকে মিটিয়ে দিতে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেই বকেয়া টাকা এরিকসন ইন্ডিয়াকে শোধ করেনি বলে দাবি। এর ফলে অনিল আম্বানি বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ ওঠে। আর সেই মামলাটিতে রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের চেয়ারম্যানকে বুধবার সুপ্রিম কোর্ট দোষী সাব্যস্ত করল।

শুধুমাত্র অনিল আম্বানি কে নয় তার সংস্থার আরো দুই ডিরেক্টরকেও দোষী সাব্যস্ত করেছে সুপ্রিম কোর্ট। এই দুই ডিরেক্টরের মধ্যে একজন রিলায়েন্স টেলিকম এর চেয়ারম্যান সতীশ শেঠ। আর দ্বিতীয়জন হলেন রিলায়েন্স ইনফ্রাটেলের চেয়ার পার্সন ছায়া ভিরিনি।
এরিকসন ইন্ডিয়া নামের সংস্থাটি রিলায়েন্স এর কাছে এখনও 453 কোটি টাকা পাবে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুসারে চার সপ্তাহের মধ্যে ওই টাকা মিটিয়ে দিতে হবে রিলায়েন্স কোম্পানিকে। এই নির্দেশ না মানলে 3 মাসের জেল হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি নরিম্যান ও বিচারপতি বিনিত সরেনের ডিভিশন বেঞ্চ। এছাড়া আদালতের অবমাননা করার জন্য প্রত্যেকের কাছে এক কোটি টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। এই জরিমানা এক মাসের মধ্যে দিতে হবে অনিল আম্বানি এবং তার সংস্থার 2 ডিরেক্টরকে। না হলে যেতে হবে জেল। 2014 সালে এরিকসন ইন্ডিয়া অনিল আম্বানির সংস্থার সঙ্গে সাত বছর একটি চুক্তি করেছিলেন।

কিন্তু চুক্তি অনুসারে টাকা না মেটানোর ফলে ঋণে জর্জরিত সংস্থার বিরুদ্ধে ন্যাশনাল কোম্পানির ল অ্যাপেলট ট্রাইব্যুনালে মামলা ঠুকে দেয় এরিকশন ইন্ডিয়া কোম্পানি। 13 ফেব্রুয়ারী যখনই মামলার শুনানি হচ্ছিল তখন রাফায়েল নিয়ে অনিল আম্বানি কে খোঁচা মারে সুইডিশ টেলিকম জায়ান্ট এরিকশন। এই কোম্পানি আদালতকে জানায়, রাফায়েল যুদ্ধবিমান চুক্তির জন্য অনিল আম্বানি বিপুল টাকা বিনিয়োগ করতে পারছেন কিন্তু কোম্পানির 550 কোটি টাকা দিতে পারছেন না তিনি। এর জবাবে আদালত কে অনিল আম্বানি জানান, সম্পত্তি বিক্রি করতে না পারার জন্য এখনো পর্যন্ত টাকা শোধ করতে পারছি না।

Related Articles

Back to top button