করোনার তৃতীয় ঢেউ রুখতে কঠোর নিয়ম নবান্নের, রাত ন’টার পর গ্ৰহন‌ করা হবে কড়া পদক্ষেপ

এবার থেকে নাইট কারফিউ না মানলে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে জেলা প্রশাসন। শনিবার জেলাশাসক দের এমনই নির্দেশ দিয়েছে নবান্ন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জারি করা বিধি-নিষেধ অনুযায়ী রাত ৯টার পরে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। এই বিধি-নিষেধ জারি থাকবে সকাল ৫টা পর্যন্ত। অর্থাৎ রাত ৯ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত নাইট কারফিউ বজায় থাকবে সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে। কেউ যদি এই নিয়ম না মানে জেলা প্রশাসনকে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে নবান্ন থেকে। এর সাথে মোটা অঙ্কের জরিমানা চালু করার পক্ষপাতী নবান্ন।

গত 14 ই জুলাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে নতুন নির্দেশিকা ঘোষণা করেছেন সেখানে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলেও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাত্রে বাইরে বেরোনো সম্পূর্ণ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু জানা যাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ কে থোড়াই কেয়ার করে অনেকে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন রাত্রে। শনিবার এই নিয়ে মুখ্য সচিব হরি কৃষ্ণ দ্বিবেদী একটি বৈঠক করেছেন ,সেখানে রাজ্যের সমস্ত জেলা শাসক এবং জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিক রা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে বলা হয়েছে নাইট কারফিউ মানায় বাধ্য করতে কড়া পদক্ষেপ করতে হবে জেলা প্রশাসনকে। বিধি না মানলে জরিমানাও চালু করতে পারে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। রাজ্যের সর্বত্র নাকা ছেকিং আরো কঠোর করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্য সচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদী।নবান্ন সূত্রে জানা গেছে ঘটনার তৃতীয় ঢেউয়ের কিভাবে রুখে দেওয়া সম্ভব সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে শনিবারের বৈঠক সেখানেই সর্বত্র নিয়ম মেনে দোকান বাজার খোলা হচ্ছে কিনা নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে কেউ দোকান খুলে রাখছেন কিনা সেই সব এদিকে নজর রাখতে বলা হয়েছে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে।

এছাড়াও রাজ্য সরকারের ঠিক করে দেওয়া গাইডলাইন যথাযথ মেনে চলছে কিনা সেই সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে প্রশাসনকে। তবে শুধু কড়া পদক্ষেপ করাই নয় তার সাথে জেলায় জেলায় মানুষকে সচেতন করার কাজ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে নবান্নের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি যারা নিয়ম মেনে চলছেন না তাদের সতর্ক করার কাজে স্থানীয় ব্যবসায়ী সংগঠন কে কাজে লাগানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও নিয়মিত মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশিত বিধি-নিষেধ এবং নাইট কারফিউ মাইক নিয়ে জেলায় জেলায় প্রচার করতে হবে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে।