তাঁকে ‘ভারতরত্ন’ (Bharat Ratna) দেওয়ার দাবি জানানো বন্ধ হোক – রতন টাটা

তাঁকে ‘ভারতরত্ন’ (Bharat Ratna) দেওয়ার দাবি জানানো বন্ধ হোক। সকলের কাছে এই আর্জি জানালেন টাটা গ্রুপের অন্যতম কর্ণধার রতন টাটা (Ratan Tata)। শুক্রবার থেকে টুইটারে ট্রেন্ডিং  #BharatRatnaForRatanTata। কিন্তু নেটিজেনদের কাছে রতন টাটার অনুরোধ, তিনি ভারতীয় হিসেবে দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধির পথে একজন অংশীদার হতে পেরে গর্বিত, তাই তাকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি জানানো বন্ধ হোক।

দেশের প্রতি অসামান্য অবদানের জন্য রতন টাটাকে সর্বোচ্চ অসামরিক পুরস্কার ‘ভারতরত্ন’ দেওয়া উচিত এই দাবি করেন ড. বিবেক ভিন্দ্রা।  তিনি শুরু করেন হ্যাশট্যাগটি। রাতারাতি এটা ট্রেন্ডিং হয়ে যায়। বিবেকের সুরে সুর মেলান বহু নেটিজেনরা।  শনিবার সকালে রতন টাটা টুইটারে লেখেন, ”একটি অ্যাওয়ার্ডের দাবিতে সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশের আবেগকে আমি সম্মান জানাচ্ছি। আমার বিনীত অনুরোধ, এই ধরনের প্রচার বন্ধ হোক। আমি ভাগ্যবান যে, ভারতীয় হিসেবে দেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধির পথে একজন অংশীদার হতে পেরেছি।”

কয়েক হাজার বিষধর কোবরা সাপকে নিয়ে সংসার যুবকের! খাইয়ে দেওয়া থেকে ঘুম পাড়িয়ে দেওয়া সব করে নিজেই, ভাইরাল ভিডিও

কেবল বিখ্যাত শিল্পপতিই নন, সমাজসেবক হিসেবেও রতন টাটা  জনপ্রিয়। করোনা আবহে টাটা সন্স গোষ্ঠীর এক অসুস্থ প্রাক্তন কর্মচারী অসুস্থ শুনে তার  বাড়িতে চলে গেছিলেন৷ তার সংসারের দায়িত্ব নেন৷ রাস্তার কুকুরকেও সুস্থ করে তুলেছেন৷ রতন টাটার মানবদরদী চেহারার পরিচয় পেয়ে আপ্লুত নেটিজেনরা। অতিমারীর মোকাবিলায়  টাটা ট্রাস্টের তরফে ৫০০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়।

পরে আরও ১ হাজার কোটি টাকার অনুদানের কথা ঘোষণা করেন রতন টাটা। সব মিলিয়ে অঙ্কটা দাঁড়ায় দেড় হাজার কোটি টাকা। এসবের পরও প্রচারের আড়ালেই থাকতে স্বচ্ছন্দ রতন টাটা । সাধারণ মানুষের মত দিন যাপন করেন। তাই অনুরাগীদের বার্তা, দেশের নাগরিক হিসেবে এসব কাজ তার কর্তব্য।  তাঁকে বারবার ‘ভারতরত্ন’ দেওয়ার দাবি বন্ধ হোক।