মাস্ক, স্যানিটাইজার-এর মূল্য নিয়ে সরকারের তরফ থেকে জারি করা হল বিবৃতি, নির্ধারিত করে দেওয়া হল মূল্য..

দিন দিন ভারতে ক্রমশ জোরালো হয়ে উঠছে করোনা ভাইরাসের দাপট। আরও ভয়াবহ হয়ে মানুষের শরীরে বাসা বাঁধছে এই জীবাণু। দেশজুড়ে হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আর এইভাবে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার জেরে সেটি চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বিশেষজ্ঞদের কাছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরও প্রকট হচ্ছে করোনা বিপর্যয়ের ছবি। আর এই করোনা ভাইরাস এর জেরে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 301 জন ও এখনো পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 5 জন।

তবে বলে রাখি বাইরে থেকে আসা বিদেশিদের থেকেই মূলত এই সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে দেখা গিয়েছে বিভিন্ন রাজ্যে। ব্যতিক্রম নয় এ রাজ্যও। আর এই রাজ্যে মোট তিনজনের শরীরে মিলেছে COVID-19. তাঁরা প্রত্যেকেই ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ড ফেরত। তবে এই করোনা ভাইরাস এর হাত থেকে বাঁচতে সরকার অতি আবশ্যকীয় পণ্যের তালিকা এনেছিল এর আগেই যার মধ্যে নাম রয়েছে স্যানিটাইজার ও মাস্কের। আর এবার প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারে গেছে কিছু অসাধু ব্যক্তি এরকম এক পরিস্থিতিতে চড়া দামে এগুলি বাজারে বিক্রি করছে।

তাই সরকারের তরফ থেকে এবার এই দুটি পণ্যের দাম বেঁধে দেওয়া হল।টুইটারে টুইট করে এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান।দেশজুড়ে যেভাবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ পড়েছে তার জেরে এখন মাক্স ও স্যানিটাইজার-এর আকাল দেখা দিয়েছে জায়গায় জায়গায় আবার কোথাও কোথাও সেটিকে বেশি দামে বেচা হচ্ছে আর সেই কারণেই সরকারের তরফ থেকে এমন এক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এক্ষেত্রে মাস্কের সর্বোচ্চ মূল্য 10 টাকা, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান জানিয়েছেন অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের অধীনে টু-প্লাই ও থ্রি-প্লাই মার্কসের দাম একই রাখা হয়েছে।আর সেটি 12 ফেব্রুয়ারি মূল্য অনুযায়ী রাখা হয়েছে এক্ষেত্রে খুচরা ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে মূল্য হবে 8 টাকা তবে কোনোভাবেই তা 10 টাকার বেশী হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর অন্যদিকে স্যানিটাইজার এর সর্বোচ্চ মূল্য রাখা হয়েছে 100 টাকা,এইদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যে টুইটটি করেন সেখানে তিনি জানিয়ে দেন 20 মিলি সেনিটাইজারের সর্বোচ্চ মূল্য কোন ভাবেই 100 টাকার বেশি নেওয়া যাবে না।

আর এর ভিত্তিতে অন্য মাপের স্যানিটাইজার এর মূল্য নির্ধারিত করা হবে বলে জানিয়েছেন, তবে আপাতত 30 জুন পর্যন্ত এই মূল্যবান কার্যকর থাকবে। তবে বলে রাখি এই মুহূর্তে ভারতে এই ভাইরাসের দরুন আক্রান্তের সংখ্যা 301 জন যার মধ্যে উত্তর প্রদেশ এবং মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 25 ও 63 জন। আর গোটা বিশ্বে বলতে গেলে এই ভাইরাসের জেরে সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছে 10 হাজারেরও বেশি আর এর মধ্যে নাম রয়েছে ভারতের ও 5 জন ব্যক্তির।

Related Articles

Back to top button