State Bank of India দিচ্ছে দুর্দান্ত সুযোগ! মাত্র ২৮ টাকা বিনিয়োগে মিলবে ৪ লক্ষ টাকা, বিস্তারিত জানতে

ভারতের সবথেকে বড় ব্যাঙ্ক হল স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (State Bank of India) ।স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তরফ থেকে গ্রাহকদের উন্নত পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকে। এই ব্যাঙ্ক গ্রাহকদের সবসময়ই এমন সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকেন যাতে গ্রাহকেরা উপকৃত হন। তবে এবার স্টেট ব্যাঙ্ক এমন কিছু সুযোগ-সুবিধা আনছেন তা হয়তো অনেক গ্রাহকেই জানেন না।

সম্প্রতি সূত্রমতে জানা যাচ্ছে এই ব্যাঙ্কে কোনো গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থাকলে তিনি চার লক্ষ টাকার সুবিধা পেতে পারেন। মাত্র ২৮ টাকা বিনিয়োগ করলে পাওয়া যাবে চার লক্ষ টাকার সুবিধা। সম্প্রতি মোদি সরকার গ্রাহকদের জন্য এক বিশেষ যোজনা আনছেন। সরকারের তরফ থেকে জানানো হচ্ছে এই যোজনায় ন্যূনতম টাকা বিনিয়োগ করলে পাওয়া যেতে পারে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

এর আগেও প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী বেশ কয়েকটি যোজনা চালু করেছিলেন। যার ফলে দেশের জনগণ উপকৃত হয়েছিল । এর আগে প্রধানমন্ত্রী ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি যোজনা এবং প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বিমা যোজনা চালু করেছিলেন। এই যোজনাগুলি থেকে জনসাধারণ বেশ ভালই উপকৃত হয়েছিল।

Advertisements

প্রধানমন্ত্রী চালু করা এই যোজনা তে বিনিয়োগ করতে গেলে ন্যূনতম খরচ পড়বে কিন্তু লাভ আসবে ভালোই। এই দুটি স্কিম মিলিয়ে বছরে মোট খরচ পড়বে ৩৪২ টাকা। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে খুব সামান্য পরিমাণ টাকা বিনিয়োগ করে গ্রাহকেরা লাভবান হবেন । দুটি বীমা চালু করতেই গ্রাহকদের ন্যূনতম টাকা বিনিয়োগ করতে হচ্ছে । প্রথম বিমা অর্থাৎ জীবন জ্যোতি বীমা জন্য একজন গ্রাহক এ বছরে ৩৩০ টাকা খরচ করতে হচ্ছে। অপরদিকে জীবন সুরক্ষা যোজনা জন্য একজন গ্রাহক কে মাত্র ১২ টাকা খরচ করতে হচ্ছে ।

Advertisements

এই টাকা জমা দেবার জন্য গ্রাহককে কোথাও ছোটাছুটি করারও প্রয়োজন পড়বে না । তার কারণ একজন বিচারকের কাছে ব্যাঙ্ক সরাসরি তার অ্যাকাউন্ট থেকে বছরের শেষে টাকা কেটে নেবে। প্রধানমন্ত্রীর চালু করা জীবন জ্যোতি যোজনায় একজন বীমা ধারক বছরে ৩৩০ টাকা বিনিয়োগ করে তার বিনিময়ে প্রায় দু লক্ষ টাকার সুবিধা পাবেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বীমা যোজনা জন্য বছরে ১২ টাকা দিয়ে থাকেন। তবে এই টাকা ও নির্দিষ্ট সময়ে ব্যাঙ্ক গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেবে। তবে যে সমস্ত গ্রাহকদের জনধন যোজনা করা আছে তাঁদের জন্য থাকছে একটি বিশেষ সুবিধা ।

সেক্ষেত্রে তাঁরা বিনামূল্যে দু লক্ষ টাকার সুবিধা পেয়ে যাবেন। এছাড়া অটল পেনশন যোজনা তেও বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে এই প্রকল্পে বিনিয়োগ করলে একজন গ্রাহক নিশ্চিন্তে পেনশন পাবেন একজন গ্রাহক তার রিটারমেন্ট এর পর অর্থাৎ ৬০ বছরের পর পেয়ে যাবেন মাসিক পেনশন হিসাব ১০০০টাকা থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত। তবে ১৮ থেকে ৪০ বছর পর্যন্ত বয়সের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। ৪০ বছরের উর্দ্ধে কেউ এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন না।