দেশজুড়ে করোনার আতঙ্ক আর এরই মধ্যে ফেসবুক ভাইরাল এক যুবক, তার দাবি আপনাদের ভালোর জন্যেই আমি দেশে ফিরিনি…..

দেশজুড়ে যেখানে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক সেখানে আরও এক ব্যক্তির নাম সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব ভাইরাল হতে দেখা যাচ্ছে এই ব্যক্তিটির নাম সৌমজিৎ মাজি। তিনি এই মুহূর্তে রয়েছেন বিদেশে তবে বিদেশে থাকার দরুন তিনি কোন আক্ষেপ প্রকাশ করেনি,বরং তিনি বিদেশে রয়েছেন এই কারণেই যাতে দেশে তার মাধ্যমে দেশে না ঢুকে পড়ে করোনা ভাইরাস। এই সৌম্যজিৎ মাজি নামক ব্যক্তিটি এই মুহূর্তে ইউরোপের নেদারল্যান্ডে আটকে পড়েছেন।

দেশ থেকে নিজের পরিবার থেকে কয়েকশো কোশ দূরে রয়েছেন তিনি তবে দেশে ফিরে দেশের মানুষদের জীবন ঝুঁকিতে ফেলাতে চাননি। তিনি চেয়েছেন দেশে মানুষ এবং তার পরিবার যেন এরকম এক ভাইরাসের প্রকোপ থেকে দূরে থাকুক।এই মুহূর্তে করোনার ভয় দেশের মানুষেদের কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে আপাতত 15 দিনের জন্য তাকে রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। তার একটাই আশা পরিবার রয়েছে দেশে ফিরে এসে যেন তাদের সুস্থ দেখতে পান তা দরুণই তিনি ফেসবুকে এমন এক পোস্ট করেছেন।

ফেসবুকে পোস্ট করা তার এই ফটোটিতে লেখা রয়েছে আপনাদের ভালোর জন্যই আমি দেশে ফিরিনি, এখন আপনি আমার পরিবারের খেয়াল রাখছেন তো? এই মুহূর্তে দেশে এমন এক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে যেখানে মানুষের পাশে মানুষকে দাঁড়ানোর সময় তবে এক্ষেত্রে শারীরিকভাবে দাঁড়ানোর কথা বলা হচ্ছে না বরং এক্ষেত্রে পুরোপুরি উল্টো ব্যাপারটি।এক্ষেত্রে নিজের বাড়িতে থেকে একে অপরকে সাহায্য করতে পারবো আমরা নাহলে পারস্পারিক মেলামেশার দ্বারা ছড়িয়ে পড়বে এই মরণ ভাইরাস করোনা।

এক্ষেত্রে শুধু সৌম্যজিৎ একাই নয় এমন অনেক মানুষই রয়েছেন যারা দেশকে বাঁচাতে ফিরে আসেনি তাদের দেশে বসবাসকারী পরিবারের কাছে। আর এরকম এক কঠিন সময়ে বাড়ি সন্তানদেরকে ছাড়াই লড়ে যাচ্ছেন তাদের ও বৃদ্ধ মা-বাবা। তাই তাদের এরকম এক ত্যাগ কে ব্যর্থ হতে দেবেন না এটাই অনুরোধ করেন সৌম্যজিৎ এই দিন ফেসবুকে। প্রসঙ্গত বলে রাখি এই সৌম্যজিৎ মাজি পেশায় একজন নাবিক, আর এই মুহূর্তে তিনি নেদারল্যান্ডের একটি বন্দরে জাহাজের মধ্যে আটকে রয়েছেন। যেমনটা আমরা জানি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই মরণ ভাইরাস করোনা, এখনো পর্যন্ত এই মরণ ভাইরাসে জেরে আক্রান্তের সংখ্যা ছড়িয়ে গেছে 600 জনেরও বেশি।

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=2567699810003028&id=100002891024206?sfnsn=wiwspwa&extid=jh8rNX02YXK9l7po

তাই গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেশজুড়ে 21 দিনের জন্য লকডাউনের ঘোষণা করে দিয়েছেন আর এরকম এক পরিস্থিতিতে দেশের সকল নাগরিকদের 21 দিনের জন্য ঘরের মধ্যে থাকার জন্য একাধিকবার আবেদন করছেন। কারণ এখনো পর্যন্ত এই মরণ ভাইরাস করোনার কোন প্রকার প্রতিশোধক নেই, এখন শুধু এর প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করবে ঘরের মধ্যে থাকা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা পরস্পরের সাথে।