তাহলে কী আম আদমি পার্টিতে যোগ দিতে চলেছেন সোনু সুদ! অভিনেতার নয়া পদক্ষেপ নিয়ে বাড়ছে জল্পনা

কংগ্রেস বা বিজেপি মত সর্বভারতীয় দলে নয় বরং আম আদমি পার্টিতে যোগ দিতে পারেন গরিবের ‘মসিহা’ তথা সনু সুদ । এই দিন শুক্রবার সংসদের আম আদমি পার্টিতে যোগ দেবার কোথায় শোনা যাচ্ছে । দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং আম আদমি পার্টির কনভেনার রাঘব চাড্ডার সাথে এই দিন সনু সুদের বৈঠক হয় এবং তাতেই জল্পনা আরো বেড়ে ওঠে। করোনাকালীন পরিস্থিতিতে হতদরিদ্র মানুষদের পাশে সব থেকে বেশি যাকে পাওয়া গিয়েছিল তিনি হলেন সনু সুদ।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পরিযায়ী শ্রমিকদের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে পৌঁছে দেয়া ,আর্থিকভাবে গরিবের পাশে দাঁড়ানো এবং অক্সিজেন প্লান্ট প্রকল্পে সামনের সারিতে এসে দাঁড়ানো সবেতেই তিনি অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিলেন । তখন থেকেই যদিও তার রাজনীতিতে প্রবেশ করার কথা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। তবে প্রতিবারই তিনি সযত্নে এই প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেছেন । কিছুদিন আগে তার কংগ্রেসে যোগদান নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছিল।

তবে এই দিন সরাসরি ভাবে বোঝা গেছে কংগ্রেস বা বিজেপি নয় আম আদমি পার্টিতে তিনি যোগদান করছেন। এদিন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে প্রায় দেড় ঘণ্টা বৈঠক করতে তাকে দেখা যায়। আর এতেই জল্পনাতে আরো অগ্নিসংযোগ ঘটে।আগামী দিনে সনু সুদ কে সরাসরি দলে টানতে আগ্রহী কেজরিওয়াল । যদিও বৈঠকের পর কেজরিওয়াল এবং রাঘব চাড্ডা দুজনাই সুদের আম আদমি পার্টিতে যোগদানের জল্পনাকে উড়িয়ে দিয়েছেন ।আপাতত দিল্লি সরকারের প্রস্তাবিত ভারত কা মেন্টার নামের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবে করবেন এই অভিনেতা।

কিছুদিন আগেই সনু সুদ ,রিতেশ দেশমুখ এবং মিলিন্দ সুমনের নাম মুম্বাই কর্পোরেশনের মেয়র পদে পদপ্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন । মুম্বাই কংগ্রেসের এক নেতা শোনা যাচ্ছিল এইরকমই কাউকে কংগ্রেসের নেতা হিসেবে নির্বাচন করা হবে। যদিও বর্তমানে এই খবরের সত্যতা যাচাই করা দরকার। কংগ্রেসের তরফ থেকে সনুকে তাদের দলে আনার কথা আভাস পাওয়া গেলেও এটি সম্পূর্ণভাবে উড়িয়ে দিয়েছেন সনু সুদ।

একটি টুইটের মাধ্যমে কিছুদিন আগে তাকে বলতে শোনা যায় সাধারণ মানুষের সাথে মিশে তিনি ভালো আছেন । নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী ভারতের দরিদ্র মানুষদের পাশে দাঁড়াতে পেয়ে পেয়ে তিনি খুবই আপ্লুত। কোন রাজনৈতিক দলের হয়ে তিনি আপাতত কাজ করতে চান না। কংগ্রেসে যোগদান করার খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা একথা দাবি করেন তিনি।

তবে সনু কে যে বেশি দিন রাজনীতি থেকে সরিয়ে রাখা যাবে না তা আগেই বোঝা গিয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত দিল্লির শাসক দল আম আদমি পার্টিকে বেছে নিতে চলেছেন অভিনেতা। সরকারিভাবে একথা ঘোষণা না হলেও সূত্র মতে তেমনটি শোনা যাচ্ছে বলে দাবি করা যায়।