Categories
দেশ নতুন খবর বিনোদন বিশেষ

পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্য করায় কংগ্রেসিরা, বিজেপি এজেন্টের তামাকা দিলেন সোনু সুদ কে..

বলিউড অভিনেতা সোনু সুদ এখন খবরের শিরোনামে। সমস্ত ভারতবাসীর তার প্রতি শ্রদ্ধা আরও বেড়ে গেল তার কাজ কর্মের দ্বারা। দেশের এই কঠিন পরিস্থিতিতে গরিব অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি।জুহুতে নিজের হোটেলটি ছেড়ে দিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য এবং পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য। এছাড়াও পরিযায়ী শ্রমিকরা যাতে নিরাপদে বাড়িতে পৌঁছাতে পারে তার জন্য বাসের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি। এরপর তিনি একটি মন্তব্য করেন যার পর তিনি আরো মানুষের মন জয় করে নেন।

তিনি বলেন,’ আমরা এসি ঘরে বসে আর টুইট করে পরিযায়ী শ্রমিকদের সমস্যা সমাধান করতে পারবো না।’
পরিযায়ী শ্রমিকদের এই পরিস্থিতি দেখার পর তিনি বলেছেন,’ এখন এসি ঘরে বসে টুইট করে পরিযায়ী শ্রমিকদের উপর সমবেদনা জানানোর সময় নয়। বরং তাদের পাশে দাঁড়ানো টায় এখন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি তাদের পাশে এখন না দাঁড়ানো যায় তাহলে তারা কেন বিশ্বাস করতে যাবেন যে কেউ একজন তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন এই খারাপ সময়ে। তাই আমি পরিযায়ী শ্রমিকদের বিভিন্ন রাজ্যে ফেরানোর জন্য যথাসম্ভব চেষ্টা করছি।

লকডাউন এর মধ্যে এটাই এখন আমার মূল কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ওই মানুষগুলোর পাশে দাঁড়িয়ে আমি যে কতটা তৃপ্তি বোধ করছি তা টুইট করে বোঝাতে পারবো না বলে জানিয়েছেন এই অভিনেতা। সোনু সুদ পরে রাজ্যপালের সাথে সাক্ষাৎ করেন এবং পরিষদের কীভাবে তিনি বাড়ি ফেরার চান এবং তাদের খাওয়া-দাওয়ার বন্দোবস্ত করছেন সেই সম্পর্কে জানান। রাজ্যপাল এই বলিউড অভিনেতা সোনু সুদের প্রশংসা করেন। কিন্তু কংগ্রেসের কর্মীরা এ নিয়ে সোনু সুদ কে আক্রমণ করেন।

তাদের দাবি সোনু সুদ বিজেপির এজেন্ট হয়ে কাজ করছেন। তারা এও দাবি করেন যে, সোনু সুদ রাজ্যের এনসিপি, কংগ্রেস এবং শিবসেনার জোট সরকারের ইমেজ খারাপ করার জন্য এই সমস্ত কাজগুলো করছেন। শুধু তাই নয় অভিনেতা সোনু সুদ এর সাথে আন্না হাজারের তুলনা করা হয়। আন্না হাজারে নাকি আগে ইন্ডিয়া এগেনস্ট করাপশেন মুভমেন্ট চালানোর পর এই নাকি আম আদমি পার্টি তৈরি হয়েছিল। গরীব অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোর পরেও সোনু সুদকে খলনায়ক বলে দাবি করেন এরা। যদিও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি সহ আরও অন্যান্য বিজেপি নেতারা এনার কাজের জন্য প্রশংসা করেন।