রাজ্যের কোন কোন জেলা গুলি রয়েছে করোনা সংক্রমিত জোন, পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ রাজ্যের..

গোটা বিশ্ব জুড়ে চোখ রাঙাচ্ছে করোনা ভাইরাস। দেশের ভিন্ন ভিন্ন রাজ্যের জেলাগুলিতে করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি কেমন তা খতিয়ে দেখতে গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে 9 টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক হয়েছে। আর এই বৈঠকের দ্বারা বেরিয়ে এসেছে বড় ইঙ্গিত যেখানে জানতে পারা যাচ্ছে আগামী মে মাসের 3 তারিখে পর করোনা সংক্রমণের গ্ৰীন জোন নামে পরিচিত এলাকা এবং জেলাগুলিতে শুরু করা হতে পারে স্বাভাবিক জনজীবন।তবে এখন প্রশ্ন কোন কোন এলাকা গুলি রেড-অরেঞ্জ-গ্ৰীন জোনে রয়েছে সেগুলি কীভাবে জানবেন?

যদিও এই বিষয় নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের কোন কোন এলাকাগুলি রেড জোনে রয়েছে সেগুলি। তবে গতকাল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নের বৈঠকে সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করলেন বাংলা যেখানে জানিয়ে দিলেন বাংলার কোন কোন জেলাগুলি রয়েছে রেড, গ্রীন, বা অরেঞ্জ জোনে… প্রকাশিত এই তালিকা অনুযায়ী রেড জোন হিসাবে নির্বাচিত করা হয়েছে এই জায়গাগুলোতে যেখানে নাম রয়েছে বাংলার চারটি জেলার, যে গুলি হল কলকাতা, উত্তর 24 পরগনা, হাওড়া, পূর্ব মেদিনীপুর।আর রাজ্যের তরফ থেকে যে আটটি জেলাকে গ্রীন  জোনে‌ রাখা হয়েছে সেগুলির মধ্যে নাম রয়েছে আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম।

অন্যদিকে যে 11 টি জেলাকে অরেঞ্জ জোনে রাখা হয়েছে সেগুলির নাম হল- দক্ষিণ 24 পরগনা, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, কালিম্পং, নদীয়া,জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, মুর্শিদাবাদ মালদা। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে একথা স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই তিন ধরনের জোনের ক্ষেত্রে রাজ্য সরকার কিন্তু এক এক রকমের ব্যবস্থা নেবে আর রেড জোনের ক্ষেত্রে কিন্তু কড়াভাবে মানতে বাধ্য করা হবে লকডাউন সরকারের তরফ থেকে, যেখানে অরেঞ্জ ও গ্ৰীন জোনের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় নির্দেশ অনুযায়ী ছাড় দেওয়া হবে একাধিক ক্ষেত্রে। এর পাশাপাশি এইদিন নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে বাংলা চারটি জেলার কোনটেইনমেন্ট জোনের তালিকা তুলে ধরেন রাজ্যের মুখ্য সচিব। তিনি জানান কলকাতায় 227 টি কোনটেইনমেন্ট করা হয়েছে, হাওড়া জেলাতে করা হয়েছে 57 টি কোনটেইনমেন্ট, উত্তর 24 পরগনা তে 57 টি ও পূর্ব মেদিনীপুরে 8 টি।

More Stories
রাজস্থানে নিজেদের লোকের কাছে হেরে গেল কংগ্রেস। জিতের আসা হলো সম্পূর্ণ শেষ, এবার এই পার্টি বানাবে সরকার।