বলিউডে আরো যে সকল তারকারা DEPRESSION এর শিকার হয়ে বেছে নিয়েছেন আত্মহত্যার পথ..

অভিনেতা-অভিনেত্রীদের যাদের আমরা পর্দায় দেখে থাকি তাদের ব্যক্তিগত জীবনে কী ঘটছে তা আমরা টের পায় না। ব্যক্তিগত জীবনে অনেক কষ্টের মধ্যে দিয়ে কাটলেও সিনেমার পর্দায় তাদেরকে অন্য রূপে থাকতে হয়। গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড, প্রেস, মিডিয়া, এই সমস্ত কিছুর বাইরে আসল মানুষটাকে চেনা সাধারণ মানুষের পক্ষে অনেকটাই কঠিন হয়ে উঠে। কিন্তু সাধারণ মানুষের মত তাদের জীবনেও অনেক টানাপোড়েন থাকে। এই টানা পড়েনের জীবন যুদ্ধে অনেক সময় হেরে যায় অনেক তারকা।

আর আজকে আমরা আলোচনা করব সেই সমস্ত তারকা দের নিয়ে যারা নিজের জীবন যুদ্ধে হার মেনে নিজেকে শেষ করে দিয়েছিলেন।

1. সুশান্ত সিং রাজপুত – 14 ই জুন 2020 সালে মুম্বাইয়ের বান্দ্রার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় তার ঝুলন্ত দেহ। কিছুদিন যাবত চরম মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি আর সেই কারণেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন বলে যানা যাচ্ছে। 2009 সালে তার ছোটপর্দায় প্রথম আগমন হয় ‘পবিত্র রিস্তা’ সিরিয়াল এর মাধ্যমে।  এরপর 2013 সালে তিনি বলিউডে পা রাখেন তিনি। তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ছিল ‘কাই পো চে’। এরপর তিনি ধীরে ধীরে আরও অনেক সিনেমায় অভিনয় করেন। যেমন, রাবাতা, পিকে, কেদার নাথ, ধোনি: দ্যা আনটোল্ড স্টোরি ইত্যাদি।

2. কুনাল সিংহ – নিজের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় এনার ঝুলন্ত মৃতদেহ। ‘দিল হি দিল ম্যায়’ সিনেমায় দুর্দান্ত অভিনয় করেছিলেন কুনাল সিংহ। তবে তার পরিবার মানে তার বাবা অভিযোগ করেছিলেন যে তাকে খুন করা হয়েছে। তবে সত্যি কী খুন করা হয়েছে না এটি ছিল আত্মহত্যা তার খবর এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

3. জিয়া খান -মাঝখানে হঠাৎ করে এই তারকা সকলের প্রিয় হয়ে ওঠে। তবে তিনি তার পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারেনি বেশিদিন। তার শুরুটা দারুণ হলেও শেষ জুহুর ফ্ল্যাটে। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় নিজেকে শেষ করে দেন তিনি। সুইসাইড নোটে লিখেছিলেন যে, তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন।

4. দিব্যা ভারতী – তিনি যখন নিজেকে মৃত্যুর পথে ঠেলে দেন তখন তার বয়স ছিল মাত্র 19 বছর। বলিউডে তিনি বেশিদিন কাজ করার সুযোগ না পেলেও যতদিন কাজ করেছেন সবারই মন জয় করে নিয়েছিলেন। এনার মৃত্যু হয় 7 এপ্রিল 1993 সালে। এই দিন নিজের ভারসোভার ফ্ল্যাট থেকে পড়ে মারা যান তিনি।

5. শ্রীদেবী – এনার নাম হয়তো শোনেননি এমন মানুষ হাতে গোনা। সেকালের সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন তিনি। 2018 সালের 24 শে ফেব্রুয়ারি দুবাইয়ের এক সাততারা হোটেলে মারা যান তিনি।হোটেলের রুমের বাথটাব থেকে উদ্ধার হয় তার দেহ। এরপর সেই দেহ ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। পোস্টমর্টেমে ধরা পড়েছে যে তার জলে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু এনার মৃত্যু নিয়ে এখনো ধোঁয়াশা রয়েছে। বাথটবে জলে ডুবে আদৌও কী মৃত্যু হতে পারে। এই প্রশ্নটাই সবারই মনে ঘুরছে এখনো পর্যন্ত। আর এই প্রশ্নের উত্তর এখনো পর্যন্ত অস্পষ্ট রয়ে গেছে।

6. অর্চনা পান্ডে – 2014 সালের 29 সেপ্টেম্বরে মুম্বাইয়ের ভারসোভাতে নিজের ফ্ল্যাটে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন এই অভিনেত্রী। আত্মহত্যা করার সময় সুইসাইডনোটটি তার বয়ফ্রেন্ড অমর পাঠানের নামে লিখে দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। পরে পুলিশ এসে তার ফ্ল্যাট থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে।