এখনো পর্যন্ত একজনও করোনা রোগীর মৃত্যু হয়নি এই হাসপাতালে, আয়ুর্বেদের মাধ্যমেই চলে চিকিৎসা

করোনাভাইরাসের জেরে ভারতের অবস্থা খুবই খারাপ। করোনার কবলে পড়ে বহু মানুষের সাথে মৃত্যু হয়েছে অনেক ডাক্তার থেকে স্বাস্থ্যকর্মীদের। এই ভাইরাসের চিকিৎসার জন্য এলোপ্যাথিক চিকিৎসার উপরই ভরসা রাখছেন বৈজ্ঞানিকরা। তবে বর্তমান সময়ে এক আয়ুর্বেদিক হাসপাতালের নাম উঠে এসেছে যে হাসপাতালের বেড সংখ্যা কম থাকা সত্ত্বেও মৃত্যু হয়নি একজন করোনা রোগীরও।

 

করোনাভাইরাসের কবলে পড়ে বিশ্বের বহু দেশের মতোই ভারতের অবস্থাও আশঙ্কাজনক। দিনে দিনে মৃত্যু হচ্ছে বহু মানুষের। করোনার চিকিৎসা এ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা পদ্ধতির উপরই নির্ভরশীল। তাই করোনা আক্রান্ত হলেই মানুষেরা ছুটে যাচ্ছেন বিভিন্ন অ্যালোপ্যাথি হাসপাতলে। আর এই রোগের চিকিৎসা খাতে ব্যয় কিছু কম নয়। তবে অ্যালোপ্যাথি পদ্ধতিতে চিকিৎসা হওয়া সত্ত্বেও অনেক মানুষই কিন্তু মারা যাচ্ছেন।

ঠিক এই মুহূর্তে দেশের একটি আয়ুর্বেদিক হাসপাতালের নাম উঠে আসে। যেখানে আজ পর্যন্ত কোনো করোনা রোগীর মৃত্যু হয়নি। অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউশন অফ আয়ুর্বেদের (AIIA) চিকিৎসায় অবাক হয়ে গিয়েছে ভারতবাসী। ২০১৭ সালে এই আয়ুর্বেদিক হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠিত হয়। নবনির্মিত এই আয়ুর্বেদিক হাসপাতলে ৪০ জন আয়ুর্বেদিক এবং ৫ জন অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসক রয়েছেন। এই হাসপাতালের বেড সংখ্যা খুবই সীমিত। এখনো পর্যন্ত তারা ৬০০ জন করোনা রোগীকে সুস্থ করতে সমর্থ হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনা আক্রান্ত রোগীদের ১০-১৪ দিনের মধ্যেই এখানে সারিয়ে তোলা সম্ভব হচ্ছে।