দেশনতুন খবরবিনোদনবিশেষ

এক সময় ভারতে কাজ খুঁজতে আসা পাক শিল্পীরাই এখন করছে সেই ভারতের বিরোধিতা, দেখুন ভারতের বিরুদ্ধে কি বলছে এই অভিনেতা-অভিনেত্রীরা..

বেশ কয়েকদিন ধরে যে জল্পনা চলছিল অবশেষে তার অবসান ঘটিয়ে নরেন্দ্র মোদি সরকার এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেন।গত সোমবার দিন কেন্দ্র সরকারের এই সিদ্ধান্তে রাষ্ট্রপতি আদেশের পর জম্মু – কাশ্মীরের অনুচ্ছেদ 370 কে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই নির্ণয়ের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীর কে পৃথক করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করা হবে। যেখানে দেশের সমস্ত মানুষ সরকারের এই সিদ্ধান্তকে মেনে নিয়ে আনন্দ উপভোগ করছেন অন্যদিকে ভারতের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান এই সিদ্ধান্তের কারণে ভারতের সাথে তাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে।

দেখিয়েছে তাদের আসল রূপ। একদিকে পাকিস্তানের সরকার ও মিডিয়া ভারতের নেওয়া এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করতে দেখা যাচ্ছে অন্যদিকে এবার তাদের সাথে সাথ মিলিয়ে পাকিস্তান শিল্পীরাও ভারতের নেওয়া এই পদক্ষেপের চরম বিরোধিতা করছে। এই শিল্পীদের মধ্যে যাদের নাম রয়েছে তাদের মধ্যে টপ লিস্টে রয়েছে মাহিরা খান, মাওবরা হোকেনের এরপর গায়ক আতিফ আসলাম ও তাদের দলে যোগ দিয়েছে।

এক সময় যে আতিফ আসলাম ভারতে থেকে কোটি কোটি টাকা উপার্জন করেছে সে এখন ভারতের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে শুরু করেছে। এরপরই ভারতীয় ফ্যানস ও শিল্পীদের দেখা যায় এদের ক্লাস নিতে। আতিফ আসলাম গত 6 আগস্ট মঙ্গলবারের দিন হজ যাত্রায় গিয়েছেন। আর যাত্রায় যাওয়ার আগে তিনি ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করেন যেখানে তিনি লিখেন আপনাদের সবার সাথে বড় কিছু ভাগ করতে গিয়ে খুব আনন্দ হচ্ছে।খুব তাড়াতাড়ি আমি আমার নিজের জীবনে খুব বড় একটি যাত্রার জন্য বের হতে চলেছি। এই হজ যাত্রায় বেরোবার আগে ক্ষমা চাইছি আমি আমার ফ্রেন্ড, ফ্যামিলি আর ফ্যানসদের কাছে। এদের কাউকে কষ্ট দিয়ে থাকলে প্লিজ আমাকে ক্ষমা করে দিও। তবে এখানেই শেষ নয় এরপর তিনি যে কথাগুলি লিখেন সেগুলির পর ভারতীয়রা তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে যান।

https://twitter.com/atifasIam/status/1159033932240891904?s=19

 

তিনি লিখেন কাশ্মীরি লোকেদের উপর হওয়া অত্যাচার এর আমি কড়া শব্দে নিন্দা করছি, হে আল্লাহ কাশ্মীরি ও পৃথিবীর সব নির্দেশদের উপর নিজের আশীর্বাদ দিতে থাকুন। আর করা এই পোষ্টের ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় ইউজাররা কড়া জবাব দেন, যেখানে ভারতীয় এক ইউজারকে বলতে দেখা যায় আপনি আপনার নিজের দেশের চিন্তা করুন আমাদের দেশের জন্য মোদীজি রয়েছেন। আরো এক ইউজার লিখেন পাকিস্তানি শিল্পীদের পরামর্শের কোন প্রয়োজন নেই ভারতের, সে ভারতের যায় চলুক না কেন। আরো এক ইউজারকে লিখতে দেখা যায় আজকে আপনি আপনার একটি ফ্যান হারালেন।

এরপর এক পাকিস্তানি অ্যাক্টরস মাইরা খান কেউ লক্ষ্য করা যায় কাশ্মীর বিষয়ক নিজের মন্তব্য পেশ করতে। এই পাকিস্তানি অ্যাক্টার্স টুইট করে লিখেন এটা কি সত্যি যে বিষয় গুলোকে আমরা উদ্দেশ্য করতে চায় না তা কী খুব সহজে ব্লক করে দেওয়া যায়? এটি বলি তে টানা রেখার দিয়ে পরে আছে, এটি সেই নির্দোষ লোকেদের সাথে জড়িত যারা নিজের জীবন হারিয়েছে। স্বর্গ জ্বলছে আর আমরা চুপচাপ চোখের জল ফেলছি। তারপর আরেকজন পাকিস্তান এক্টট্রেস ও বিগবস 4 এর কনটেসটেন্ট থাকা বিনা মল্লিক জম্মু কাশ্মীরের বিষয় ভারত বিরোধী টুইট করে আর বলে ” ভারত সব আন্তঃরাষ্ট্রীয় নিয়মকে ভাঙছে। 70 বছর ধরে ভারত কাশ্মীরকে দাবিয়ে রাখছে।

তবে আপনাদের জানিয়ে দিয়ে এই সব পাকিস্তানি শিল্পীরা ভারতে আসেন শুধুমাত্র ভারত থেকে ধন অর্জন করার জন্য। আর তাদের উপার্জন করা এই টাকার একটা বড় অংশ তারা তাদের দেশ পাকিস্তানকে ট্যাক্স হিসাবে , এই টাকার দ্বাড়ায় পাকিস্তান জইশ-ই-মহম্মদ, লস্কর-ই-তৈয়বার মতো বড় বড় সন্ত্রাসী সংগঠন গুলি গড়ে তোলে। এই সব শিল্পীরা কেবলমাত্র ভারতে আসে ধন অর্জন করতে তবে এরা চিরকালই থাকে নিজের দেশের জন্য অনুগত। যেমন কি আপনারা জানেন কাশ্মীর বিষয়ক যেকোনো সিদ্ধান্ত ভারত সরকারের নিজস্ব এবং এবার ভারত সরকার যে সিদ্ধান্তটি নিয়েছে তা সত্যিই খুব প্রশংসনীয়, আর আমাদের দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ক কিছু ব্যাপারে এইসব বাইরের শিল্পীদের কোন অধিকার নেই নিজেদের মতামত দেবার।

এই বিষয়ে আপনাদের কি মতামত তা আমাদেরকে কমেন্ট বক্সে অবশ্যই জানাবেন পোস্টটি ভাল লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Related Articles

Back to top button