বিজেপির বৈঠকে নাটকীয় ভাবে নাম প্রস্তাব মুকুলের, শুভেন্দু কেই করা হচ্ছে বিরোধী দলনেতা

এবারের বিধানসভা নির্বাচনের মঞ্চে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত হয়েছে তৃণমূল শিবির। বিরোধী পক্ষ হিসেবে উঠে এসেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আজ বিরোধী দল নেতা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন সদ্য তৃণমূল পদত্যাগকারী শুভেন্দু অধিকারী। আর আজ অর্থাৎ সোমবার শুভেন্দুকেই বিরোধী দলনেতা হিসাবে ঘোষণা করা হল বিজেপি মহল থেকে।

গত শনিবারে শোনা গেছিল যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তবে বিরোধী দল নেতার আসনে বসবেন শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং দলের অন্যতম সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদবের উপর দায়িত্বভার ছিল বিরোধী দলনেতা কে হবেন তা খুঁজে বের করার।

আজকে ছিল পরিষদীয় দলের বৈঠক। ওই বৈঠকে হাজির ছিলেন ৭৭ জন বিধায়ক। দলের বিধায়ক তথা বিজেপি-র সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায় শুভেন্দু অধিকারীর নাম প্রস্তাব করেন। আরও ২২ জন বিধায়ক সেই প্রস্তাবকে সমর্থন করেন।

শুভেন্দু অধিকারীর পাশাপাশি কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়ের নামও আলোচনায় উঠে এসেছিল। এই বিষয়ে বিজেপি নেতাদের একাংশের মতে হল মুকুল রায় দলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতির দায়িত্বে আছেন। তাঁকে সাংগঠনিক কাজও দেখতে হবে। আবার এই প্রথমবার বিধায়কের আসনে বসলেন মুকুল রায়।

শুভেন্দু অধিকারী কিন্তু এইদিকে মুকুল রায়ের তুলনায় অভিজ্ঞ। বিধানসভায় থাকার তাঁর পুরনো অভিজ্ঞতা রয়েছে তার ওপর এবার তিনি নন্দীগ্রাম থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরাজিত করেন তাই শুভেন্দু অধিকারীকেই বিরোধী দলনেতার মর্যাদা দিতে সম্মতি জানায় বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।