খেলাধুলানতুন খবরবিশেষ

আম্পায়ারের সাথে দুর্ব্যবহার করে বিতর্কে জড়ালেন ভারতের উদিতমান ক্রিকেটার শুভমান গিল

এবার বিতর্কে নাম জড়ালেন ভারতীয় ক্রিকেটার শুভমান গিল, গত শুক্রবার দিন মোহালিতে অনুষ্ঠিত হওয়া রঞ্জিত পাঞ্জাব বনাম দিল্লি ম্যাচে আউট হওয়ার পরেও মাঠে দাঁড়িয়ে থাকলেন এই কুড়ি বছর বয়সী ক্রিকেটার। এমনকি তার উপরে এই দিন আম্পিয়ারের সাথে দুর্ব্যবহার ও করার অভিযোগ ওঠে। শেষ পর্যন্ত আম্পিয়ার তার আউটের সিদ্ধান্তকে ফিরিয়ে নেন।এইদিন পাঞ্জাব বনাম দিল্লি ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পাঞ্জাবের দল।

মিডিয়াম পেসার সুবোধ ভাটির বলে ওপেনার ব্যাটসম্যান আউট দেওয়া হয়েছিল তখন তিনি 10 রানে ব্যাট করছিলেন। তবে আম্পয়ারের আউটের সিদ্ধান্ত দেওয়ার পরও তিনি মাঠ ছাড়তে অস্বীকার করেন এমনকি তিনি আম্পিয়ারের সাথে দুর্ব্যবহার করেন। পরে যদিও আম্পিয়ার তার নিজের সিদ্ধান্ত পাল্টে নেন। তবে এরপর দিল্লি শিবিরের তরফ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়। অ্যাম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে নেয়ার প্রতিবাদে দিল্লির ক্রিকেটাররা মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে পড়েন।

এইদিন নিতিশ রানা অভিযোগ করেন আম্পায়ার কে অপমান করেছেন শুভমন গিল মাঠের মধ্যে দাঁড়িয়ে থেকে। শুধু তাই নয় এর দরুন মিনিট দশেকের মতো বন্ধ ছিল এই দিনের ম্যাচও।তবে এই দিন আউটের সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে নেওয়ার পরও যদিও বেশিখন মাঠে টেকেননি শুভমান গিল, এই দিন 41 বলে 23 রান করে সিমন জিৎ সিং এর বলে আউট হয়ে যান শুভমন। তবে আরো বলে রাখি, শুভমন গিল এই মুহূর্তে ভারতের ক্রিকেটে সাদা বলের দলের অধিনায়ক। এমন কী তার নেতৃত্বে নিউজিল্যান্ড- ভারত এর দল তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে।

তবে এ বিষয়ে দিল্লি দলের ম্যানেজমেন্ট বিভাগ খুরানা সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান যে মোহাম্মদ রফি যিনি এই ম্যাচের ছিলেন আম্পায়ার তিনি যখন শুভমনকে আউট দিয়েছিলেন, তখন তিনি সোজা আম্পিয়ারের কাছে চলে যান আম্পিয়ারের সাথে তর্ক বিতর্ক করতে থাকে এই বিষয়ে। এমনকি আম্পিয়ারের এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার দাবি তোলেন তিনি। আর তার পরই এ বিষয়ে স্কোয়ারে সঙ্গে আলোচনা করেন মোহাম্মদ রফি। এবং তার দেওয়া আউটের সিদ্ধান্ত তিনি প্রত্যাহার করে নেন।

তবে এ বিষয়ে খুরানা নীতিশ রানার মতামত জানিয়ে বলেন,নিতিশ রানা শুধুমাত্র আম্পায়ারকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন কেন আগে সিদ্ধান্ত পাল্টে দেওয়া হলো।তিনি বলেন আমরা কখনই ওয়াকআউট করিনি। ম্যাচ রেফারি এসে কথা বলার পর স্বাভাবিক ভাবেই শুরু হয়ে যায় ম্যাচ।” দিল্লি ক্রিকেট সংস্থার সচিব বিনোদ তিহারা বলেছেন, “সাত কি আট মিনিট বন্ধ ছিল খেলা। আমাদের ক্রিকেটাররা ভেবেছিল যে গিল আউট ছিল। তার জন্যই কেন আউটের সিদ্ধান্তে অটল থাকলেন না আম্পায়ার ওরা সেটাই জিজ্ঞাসা করেছিল।”

Related Articles

Back to top button