নির্বাসিত হওয়ার পর আপাতত ক্রিকেট থেকে দূরে থেকে কাঁকড়া চাষ শুরু করতে চলেছেন শাকিব…

বুকিদের প্রস্তাবে সাড়া দেননি, তবে তথ্য লুকিয়েছেন বলে কড়া শাস্তির পাত্র হতে হল এবার বাংলাদেশের অলরাউন্ডার তারকা ক্রিকেটার শাকিব আল হাসানকে। আর আইসিসির দুর্নীতি দমন শাখা আগামী দুবছরের জন্য সব ধরনের প্লাটফর্মের ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত করেছে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার তথা শাকিব আল হাসানকে। তাদের প্রিয় ক্রিকেট তারকার এরকম খবর পেয়ে ভেঙে পড়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।আর এই নিয়ে ওপার বাংলায় বিভিন্ন জায়গায় দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রদর্শন করা হচ্ছে।

তবে আপাতত ক্রিকেট থেকে বাইরে থাকলে এবার ব্যবসাতে মনোনিবেশ করতে চাইছেন এই বাংলাদেশি ক্রিকেটার শাকিব। যদিও এর মধ্যেই তিনি বেশ কিছু ব্যবসার সাথে যুক্ত রয়েছেন তবে এবার একেবারে অন্য ধরনের ব্যবসা শুরু করতে চাইছেন শাকিব। এই বাংলাদেশি ক্রিকেটার জানান এবার তিনি কাঁকড়া চাষ শুরু করতে চান।বাংলাদেশের এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে সাতক্ষীরা জেলার বুড়িগোয়ালি অঞ্চলে 50 বিঘা জমির উপর কাঁকড়া চাষের জন্য খামার গড়ে তুলেছেন তিনি।

এখন এই খামার নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। তিনি এই খামারের নাম দিয়েছেন “শাকিব এগ্রো ফার্ম লিমিটেড”। এই নিয়ে শাকিবের ঘনিষ্ঠদের তরফ থেকে বলা হয়েছে যে এই ভাবে যদি খামারের কাজ চলতে থাকে তাহলে আগামী বছরের মধ্যেই কাঁকড়া চাষ শুরু করতে চলেছেন শাকিব। এই খামারটি তৈরি করা হয়েছে পুরোপুরি আধুনিক ভাবে যেখানে রয়েছে শ্রমিকদেরও থাকার ব্যবস্থা রয়েছে ফ্রিজারও ব্যবস্থা। এরই সাথে সাথে জানতে আরো জানতে পারা সে দেশের প্রায় 150 জনের কর্মসংস্থান হতে চলেছে ভবিষ্যতে এই খামারটি।

আরো জানা গেছে এই সাতক্ষীরা জেলারই বাসিন্দা রয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেট টিমের শাকিবের দুই সতীর্থ মুস্তাফিজুর রহমান ও সৌম্য সরকার।শাকিবের ঘনিষ্ঠদের তরফ থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে আপাতত এই বাংলাদেশি ক্রিকেটার ক্রিকেট থেকে দূরে থেকে ব্যবসাতে মন দিতে চাইছেন। অন্যদিকে শাকিব আইসিসির দেওয়া শাস্তি মাথা পেতে নিয়েছেন এই নিয়ে এক সংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারে শাকিব জানান নির্বাসিত হয়ে অত্যন্ত খারাপ লাগছে, কিন্তু আমি প্রস্তাব পেয়েও যে গোপন রেখেছি সেটা স্বীকার করেছি।

যেমন কি আইসিসির দুর্নীতি দমন শাখার শক্ত হাতে দুর্নীতি রোধে ভূমিকা পালন করে কিন্তু আমি আমার দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করিনি। গোটা বিশ্বের ক্রিকেটার ও ক্রিকেটপ্রেমীদের মত আমিও চাই যেন ক্রিকেট দুর্নীতিমুক্ত থাকে। তাই একথা সবারই মাথায় রাখা উচিত পরবর্তীকালে কেউ যেনো আমার মত ভুল না করে বসে।

Related Articles

Close